অনুমোদনহীন পণ্য রাখায় আলমাস, মোস্তফা মার্টসহ ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

|

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে ভেজালবিরোধী অভিযান চালিয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এসময়, বিএসটিআই-এর অনুমোদন না থাকায় ৫টি প্রতিষ্ঠানকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আলমাস, মোস্তফা মার্টসহ কয়েকটি দোকানে বিদেশ থেকে আমদানিকৃত পণ্যে বিএসটিআই এর অনুমোদন না থাকায় তাদের অর্থদন্ড দেয়া হয়।
ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মন্ডল।

মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, আলমাস, মোস্তফা মার্ট, বিবিবি কসমেটিক্স- এগুলো নামিদামি প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানের ওপর মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে। কিন্তু মানুষের সরলতাকে পুঁজি করে অবৈধ পন্থায় আনা বিভিন্ন বিদেশি প্রসাধনী সামগ্রী বিক্রি করছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

এসব প্রসাধনীর গায়ে আমদানিকারকের নামও লেখা নেই। এটি আসলে ব্র্যান্ডের পণ্য নাকি কেরানীগঞ্জ, জিঞ্জিরা ও চকবাজারে তৈরি নকল কসমেটিক্স কিনা তার কোনো নিশ্চয়তা নেই। এসব পণ্যে ইচ্ছেমতো মূল্য লিখে বিক্রি করছে। ফলে, একদিকে ভোক্তাদের ঠকাচ্ছে, অন্যদিকে রাজস্ব ফাঁকি দিচ্ছে, যা আইন অনুযায়ী দণ্ডনীয়।

এ অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ অনুযায়ী, আলমাস সুপার শপ, মোস্তফা মার্ট, বিবিবি কসমেটিক্সকে বিভিন্ন অর্থদণ্ডে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া সেভলি কসমেটিক্স, নিউর কসমেটিক্সকে বিভিন্ন অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয় এবং আমরিন ফ্যাশনকে জরিমানাসহ দোকানটি সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে।









Leave a reply