রাজধানীর ৩৪ পয়েন্টে ওয়াসার পানি পরীক্ষার নির্দেশ হাইকোর্টের

|

রাজধানীর ৩৪ পয়েন্টে ওয়াসার পানি পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ওয়াসার পানির বিশুদ্ধতা নিয়ে নানা বিতর্কের মধ্যে মঙ্গলবার হাইকোর্টের এ নির্দেশ এলো। বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

৩৪টি পয়েন্ট হচ্ছে- ঢাকা ওয়াসার ৪টি সোর্স পয়েন্ট, ১০টি জোন, ১০টি ঝুঁকিপূর্ণ এবং ১০টি র‌্যান্ডম এলাকা।

আদালতের নির্দেশে গঠিত কমিটি বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও আইসিডিডিআরবির ল্যাবে পানি পরীক্ষা করে ২ জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। আর এসব কার্যক্রমের খরচ বহন করতে হবে ওয়াসাকে।

এর আগে আদালতে এ বিষয়ে মতামত দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সাবিতা রিজওয়ানা রহমান। তিনি ওয়াসার পানি পরীক্ষা কমিটির সদস্য।

আদালতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু। রিটকারী পক্ষের আইনজীবী তানভীর আহমেদও উপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পক্ষে রাষ্ট্রপক্ষ একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেছে।

এতে গত তিন মাসে ঢাকা ওয়াসার সংযোগে পানি নিয়ে অভিযোগের তালিকা বিশ্লেষণ করে ১০টি জোনের ৫৯ এলাকায় ময়লা পানির প্রবণতা বেশি বলে জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৪ মে কমিটির তৃতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং আইসিডিডিআরবির ল্যাবে পানির বিভিন্ন প্যারামিটারের মূল্য হার একীভূত করে মোট বাজেট সংযুক্ত করা হলো।

বাজেটে বলা হয়, এই ১০টি জোনের প্রত্যেক এলাকা থেকে ৩৫৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হবে। ফলে মোট নমুনার সংখ্যা দাঁড়াবে ১০৬৫টি। এই ১০৬৫টি নমুনা করে তিনটি ল্যাবরেটরিতে রোগজীবাণু ও ভৌত রাসায়নিক সংক্রান্ত পরীক্ষা করতে খরচ হবে ৭৫ লাখ ৬১ হাজার ৫০০ টাকা।

হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বিষয়ে মতামত শুনতে ওই কমিটির সদস্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সাবিতা রেজওয়ানা রহমানকে আদালতে আসতে বলেন।









Leave a reply