রাষ্ট্রের মেরামতে নতুন রাজনীতির উত্থান অপরিহার্য: মনজু

|

জন আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশের সমন্বয়ক মজিবুর রহমান মনজু বলেছেন, অগ্রহণযোগ্য সংসদকে গ্রহণযোগ্য বানানোর চেষ্টা চলছে। বিরোধী দলের সংসদে যোগ দেয়ার নাটক হচ্ছে। ধানের উৎপাদিত মূল্য ও চালের বিক্রয় মূল্যের বিরাট ব্যবধান। বালিশ দুর্নীতি চলছে। তাই রাষ্ট্রের মেরামতে নতুন রাজনীতির উত্থান অপরিহার্য।

বুধবার জন আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্যারাডাইস হোটেলের বল রুমে আয়োজিত মতবিনিময় ও ইফতার অনুষ্ঠানে বিভিন্ন উপজেলার জন প্রতিনিধি, পেশাজীবী, ছাত্র-যুব নেতৃবৃন্দসহ শতাধিক ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন।

কক্সবাজারের বিশিষ্ট শিল্পপতি জাহাঙ্গীর কাশেমের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক শামছুল হক শারেকের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তাজুল ইসলাম, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম সিদ্দিকী, জন আকাঙ্ক্ষার অন্যতম উদ্যোক্তা মেজর (অব:) ডাক্তার আব্দুল ওহাব মিনার, আইনজীবী সমিতির সেক্রেটারী অ্যাডভোকেট গোলাম ফারুক খান কায়সার, কমিউনিটি পুলিশিং এর প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী জেবর মূলক, কক্সবাজার সরকারী কলেজের সাবেক জিএস অ্যাডভোকেট এনামুল হক শিকদার, কক্সবাজার সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি শ্রমিকনেতা সৈয়দ করিম, সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম প্রমূখ।

জন আকাঙ্ক্ষার নতুন উদ্যোগ সম্পর্কে বক্তারা বলেন, রাজনীতির মূল প্রতিপাদ্য হল নাগরিকদের অধিকার নিশ্চিত করা। কিন্তু দুঃখজনকভাবে বাংলাদেশের রাজনীতি আবর্তিত হচ্ছে ক্ষমতার মসনদে বসে শোষণ ও ব্যক্তিগত সম্পদ আহরণের প্রতিযোগিতায়। একদল আরেক দলের কুৎসা ও বিভেদই যেন রাজনীতির মূল বিষয়। যে জাতি সাম্য প্রতিষ্ঠার জন্য যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছে রাজনৈতিক নেতৃত্বের ব্যর্থতায় সেখানে আজ পদে পদে বৈষম্য জেঁকে বসেছে। জাতির ঐতিহাসিক প্রয়োজনে তরুণরা সবসময় এগিয়ে এসেছে। সময়ের দাবি পূরণে তরুণরাই আবার এদেশকে রক্ষা করবে। সভা শেষে উদ্যোক্তাগণ উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

তারা বলেন, তত্ত্ব বা মতবাদ প্রতিষ্ঠার রাজনীতি বাংলাদেশে কখনো সফল হয়নি বরং অধিকারের আন্দোলনই জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে বিজয়ের সূচনা করেছে।









Leave a reply