সম্রাট নারুহিতোর সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাত

|

বাণিজ্য ঘাটতি ইস্যুতে এবার জাপানকে চাপ প্রয়োগ করলো যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে সফররত অবস্থায় ডোনাল্ড ট্রাম্প বললেন, দু’দেশের ভারসাম্যহীন বাণিজ্য সঠিক পথে আনতে চলছে আলোচনা। জবাবে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে জানান, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অটুট রাখতে নেয়া হবে যথাযথ পদক্ষেপ।

জাপানের সিংহাসনে আরোহণের পর, প্রথমবার কোন বিশ্বনেতা করলেন সম্রাট নারুহিতোর সাথে সাক্ষাৎ। তাও খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট। রাজকীয়তা বজায় রাখতেই ছিলো ‘গার্ড অব অনার’।

সফরসূচি অনুযায়ী, তৃতীয় দিন গণমাধ্যমের সামনে পারস্পরিক বাণিজ্য-পররাষ্ট্র সম্পর্ক এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে পরিকল্পনা উন্মোচনের কথা। সেখানে, বাণিজ্য ঘাটতি ইস্যুতে জাপানকে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। উত্তর কোরিয়া নিয়ে ব্যক্ত করলেন প্রত্যাশা।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, বর্তমানে দু’দেশের মধ্যে ভয়াবহ বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে। যা দূর করতে উভয়পক্ষের মধ্যে চলছে আলোচনা। একক কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছানো সময়ের ব্যাপার মাত্র। আর, যতোই রকেট বা ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করুক; উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে ভালো সংবাদ শোনার প্রত্যাশায় রয়েছি।

জাপানি প্রধানমন্ত্রীও আশ্বস্ত করলেন, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অটুট রাখতে নেয়া হবে যথাযথ পদক্ষেপ।

প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেন, দু’দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা করছি আমরা। বরাবরই যুক্তরাষ্ট্রের সাথে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে গুরুত্ব দিয়ে এসেছে জাপান। ভবিষ্যতেও সেটা বজায় থাকবে। একইসাথে, উত্তর কোরিয়ার মতো আন্তর্জাতিক সংকট সমাধাণেরও পথ খোঁজা হচ্ছে।

চীনের সাথে অর্থনৈতিক টানাপোড়েন আর উত্তর কোরিয়ার সাথে পরমাণু কর্মসূচি ইস্যুতে দোটানার মধ্যেই জাপান এলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার শেষ হবে ৪ দিনের রাষ্ট্রীয় সফর।









Leave a reply