বিশ্বকাপের মঞ্চে চমকের অপেক্ষায় আফগানিস্তান

|

পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু আফগানিস্তানের। মূল আসরেও চমক দিতে প্রস্তুত শেহজাদ-রশিদ খানরা।

বাছাই পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়ে আফগান দল এখন বিশ্বকাপ মাতানোর অপেক্ষায়। ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে তাদের এমন পদচারণা পাল্টে দিয়েছে আফগান সমাজের চিত্র। তালেবান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান সবার কাছেই নবী-মুজিবরা এখন জাতীয় তারকা। তাই ক্রিকেট দিয়ে জাতীয় তারকা হওয়ার স্বপ্ন এখন দেশটির কিশোরদের চোখে।

আর্থিক ও অবকাঠামো সংকট থাকলেও যুব সমাজের এমন আগ্রহ বিশ্বমঞ্চে শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট এনে দেবে আফগানিস্তানকে। বিশ্বাস দেশটির জাতীয় দলের ক্রিকেটার হামিদ হাসানের।

বৃটিশদের হাত ধরে উনিশ শতকে আফগানিস্তানে শুরু হয় ক্রিকেট চর্চা। এরপর সোভিয়েত ইউনিয়নের আক্রমণে পাকিস্তানে আশ্রয় নেয়া শরনার্থীদের হাত ধরে অব্যাহত থাকে সেই চর্চা। তবে তালিবান শাসনামলে দেশটিতে নিষিদ্ধ করা হয় ক্রিকেট ও ফুটবল খেলা। ট্রাউজার পড়ে খেলা হয় বলে এ যাত্রায় বেঁচে যায় ক্রিকেট। আফগানিস্তানে শুরু হয় ক্রিকেট দিয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উচু করে দাঁড়াবার সংগ্রাম।

২২ গজের দাপট স্বস্তি দিয়েছে জঙ্গী-সন্ত্রাসের দেশ আফগানিস্তানে। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও স্বপ্ন দেখেন, ক্রিকেটেই ডানা মেলবে আফগান তরুণদের স্বপ্ন।

বিশ্বকাপ শুরু হতে বাকী আর মাত্র ক’দিন৷ এবারের বিশ্বকাপে বড় দলগুলোর বিপক্ষে অঘটনের জন্ম দেবে আফগানিস্তান দল, এমনটাই মনে করছে অনেকে।

যমুনা অনলাইন/ইউএমএম









Leave a reply