রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি, ভোগান্তি

|

একে রমজান মাস, তার ওপর টানা কয়েক দিনের অস্বস্তিকর গরমে অতিষ্ট হয়ে উঠেছিল জনজীবন। তবে প্রচণ্ড গরমের পর অবশেষে রাজধানীতে দমকা হাওয়ার সঙ্গে স্বস্তির বৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার ভোর সাড়ে ৫টা থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত রাজধানীতে এ স্বস্তির বৃষ্টিপাত হয়।

এর আগে শুক্রবার রাতে রাজধানীর মিরপুর, শ্যামলী, কালশি, বসুন্ধরা, বারিধারা, উত্তরা, বনানীসহ বেশ কিছু এলাকায় বৃষ্টি নামে। বর্ষণের সঙ্গে হালকা বাতাস পরিবেশ করে দেয় আরও ঠাণ্ডা। এতে নগরে যেন প্রশান্তি নেমে আসে।

তবে যারা ঈদযাত্রায় ঘর থেকে বের হয়েছিলেন তারা বেশ ভোগান্তিতে পড়েন। হঠাৎ নেমে আসা বৃষ্টিতে অনেকেই ভিজে যান।

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন, টাকা কয়েকদিন পর ঢাকায় বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে হালকা বাতাস বয়েছে। শুক্রবার ঢাকায় সর্বোচ্চ ৩৫ দশমিক ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এই তাপমাত্রার কারণে দিনভর তাপপ্রবাহ ছিল কড়া। সন্ধ্যায়ও রেশ ছিল ভ্যাপসা গরমের।

শনিবার ভোরের বৃষ্টিতে মিরপুর, কাজীপাড়া, শ্যাওড়াপাড়া, ফামর্গেট, কারওয়ানবাজার, শান্তিনগর, মালিবাগ, রামপুরা, কাকরাইল, বিজয় নগরসহ অধিকাংশ এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতার কারণে ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়েছে যানবাহন চলাচলে। রাস্তায় গণপরিবহনের পরিমাণ কম থাকায় অফিসগামী মানুষেরা চরম দুর্ভোগে পড়েন। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বিদ্যুৎ চমকায় এবং দমকা বাতাসও বয়ে যায়।

এ ছাড়া আজ রাজশাহী, পাবনা, ঢাকা, মাদারীপুর, রাঙ্গামাটি, নোয়াখালী ও বরিশাল অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের ওপর মৃদু তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলা হয়েছে- রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু-কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চল হয়ে পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তর বঙ্গোপসাগরে বিস্তৃত রয়েছে।









Leave a reply