এবার মহিষের মাংস খাওয়ার অভিযোগে ৪ শ্রমিককে জঙ্গিদের মারধর

|

মাংস খাওয়ার অভিযোগে চার শ্রমিককে বেধড়ক মারধর করেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের উগ্রপন্থী হিন্দুত্ববাদী জঙ্গিরা। মারধরের শিকার চার শ্রমিকের মধ্যে ২ জন মুসলমান ছিলেন। উত্তর প্রদেশের বরেলিতে এ ঘটনা ঘটেছে।

ওই চার শ্রমিককে মারধরের ভিডিও ভারতীয় সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিও’র বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানায়, ওই চার শ্রমিককে কয়েকজন অজ্ঞাত যুবক বেল্ট ও স্যান্ডেল দিয়ে পেটাতে থাকে।

ভিডিওতে দেখা যায়, চার শ্রমিক মাটিতে বসে রয়েছেন খাবার নিয়ে। তারা দুপুরের খাওয়া শুরু করার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই কয়েকজন ঘিরে ধরে তাদের মারতে শুরু করে। চড়-থাপ্পড়ের সঙ্গে জুতো, বেল্ট দিয়েও মারা হয় তাঁদের। শ্রমিকদের একজনকে দেখা যায় আক্রমণকারী এক যুবকের পা ধরে কিছু বলার চেষ্টা করছেন। কিন্তু তারা তাতে কান দেয়নি।

বাহেরি থানার পুলিশ কর্মকর্তা ধনঞ্জয় সিংহ জানান, একটি বাড়ি তৈরির কাজের জন্য ওই দৈনিক শ্রমিকদের এনেছিলেন এক রাজমিস্ত্রি। যে জায়গায় বসে ওই চার জন খাচ্ছিলেন, তার পাশে একটি ছোটখাট দেবস্থান রয়েছে। গাছের তলায় দেব-দেবীর মূর্তি রাখা থাকে সেখানে। মারধরের সময় প্রথমে ওই শ্রমিকরা জানান, তারা নিরামিষ খাবার খাচ্ছেন।

অপর আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, পরের দিকে এক শ্রমিক স্বীকার করেন তার টিফিন কৌটায় মহিষের মাংস ছিল। যা শুনে তাদের উপরে অত্যাচার আরও কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

বরেলীর এসএসপি মুনিরাজ জি নিউজকে জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের মধ্যে আদেশ বাল্মীকি এবং মণীশ নামে দুই স্থানীয় যুবক ছিল। চার জন অজ্ঞাতপরিচয় যুবকও সেখানে ছিল। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধেই এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তবে ধরা পড়েনি কেউই।









Leave a reply