বিশ্বকাপে বিশ্বরেকর্ড করলেন নাইল

|

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৮ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৯২ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলেছেন নাথান কোল্টার নাইল। তাতেই রেকর্ড বুকের পাতায় নিজের নাম লিখিয়ে ফেলেছেন তিনি। বিশ্বকাপ ইতিহাসে ৮ নম্বরে নেমে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড এখন তার দখলে। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরে এ নজির আর কারও নেই।

এতদিন রেকর্ডটি ছিল জিম্বাবুয়ে কিংবদন্তি হিথ স্ট্রিকের নিয়ন্ত্রণে। ২০০৩ বিশ্বকাপে দলের হয়ে ৮ নম্বরে নেমে অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংস খেলে এ রেকর্ডের মালিক ছিলেন তিনি। এবার তা ভেঙে নতুন করে গড়লেন নাইল।

আর একটু হলে ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসে ৮ নম্বরে নেমে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ডটিও ভেঙে দিতেন কোল্টার। এ ফরম্যাটে এই পজিশনে সর্বোচ্চ রানের ব্যক্তিগত রেকর্ড ইংল্যান্ডের ক্রিস ওকসের। ৮ নম্বরে নেমে ৯৫ রানের অনন্যাসাধারণ ইনিংস খেলেন ইংলিশ তারকা। সেই হিসাবে আর ৪ রান করতে পারলেই বিশ্বরেকর্ড ভেঙে দিতেন নাইল। তবে ৯২ রান নিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন তালিকার দুইয়ে।

এ রেকর্ডে নাম লেখাতে না পারলেও এদিন অস্ট্রেলিয়াকে বড় লজ্জার হাত থেকে বাঁচিয়েছেন নাইল। ট্রেন্ট ব্রিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ৩৮ রানে শীর্ষ ৪ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চাপে পড়েন অজিরা। সেখান থেকে রান এগিয়ে নিচ্ছিলেন স্মিথ। এর পর সপ্তম উইকেটে তাকে নিয়ে ১০২ রান যোগ করেন নাইল। মূলত এ জুটিতেই লড়াইয়ের পুঁজি (২৮৮) পান ডিফেন্ডিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

স্মিথ ৭৩ রান করে থমাসের শিকার হলে এ জুটি ভাঙে। নাইল সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে ফেরেন ৯২ রান করে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৪টি ছয় ও ৮টি চারে। ৬০ বলের এ ঝড়ো ইনিংসের ৬০ ভাগ রানই এসেছে বাউন্ডারি থেকে।

জবাব দিতে নেমে মিচেল স্টার্কের পেস তোপে পড়ে উইন্ডিজ। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে দলীয় স্কোরবোর্ডে ২৭৩ রান তুলতে সক্ষম হয় ক্যারিবীয়রা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৮ রানের ইনিংস খেলেন শাই হোপ। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৪৬ রানে ৫ উইকেট শিকার করেন স্টার্ক। ১৫ রানের রোমাঞ্চকর জয়ে টুর্নামেন্টে হারের মুখ দেখা থেকে বঞ্চিত থাকে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।









Leave a reply