গলাচিপায় স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার চরকাজল ইউনিয়নের শিবা গ্রামে স্ত্রী চার সন্তানের জননী পারভীন বেগমকে (৪৬)কে জবাই করে হত্যা করেছে স্বামী সিরু খা (৫০)।

ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত রক্তাক্ত দা সহ ঘাতক স্বামী সিরু খাকে রোববার সকালে পুলিশ সুপারের নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান ও গলাচিপা থানা পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে স্বামী সিরু খা।

নিহত পারভীনের লাশ ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালীর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যপারে গলাচিপা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার চরকাজল ইউনিয়নের শিবা গ্রামের বাংলা বাজারের পাশে নিজ বাড়িতে সিরু খা পরিবাবার পরিজন নিয়ে থাকতো। সিরু খার সাথে প্রতিবেশীদের বিরোধ চলে আসছিল। নিজের পরকিয়া প্রেম ও প্রতিবেশীদের ডাকাতি ও খুনের মামলায় ফাঁসাতে শনিবার রাত ১টার দিকে স্ত্রী পারভীনকে ঘর থেকে ডেকে বাইরে এনে বাংলা দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনা সিরু খার ছোট ছেলে নুর আলম পুলিশের কাছে জবানবন্দী দিয়েছে। এর পরই সিরু খাকে বড়শিবা গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সিরু খার ছোট ছেলে নুর আলম বলেন, আব্বায় ক্যান যে এ ঘটনা ঘটাইছে কইতে পারি না। রাইতে আমার মাকে দাও (দা) দিয়ে কোপ দিলে সে দৌড়ে ঘরের বাইরে চলে যায়। সেখানে এলোপাথারি কুপিয়ে জবাই করে। এ অবস্থায় আমি পালিয়ে প্রতিবেশীদের ডেকে আনি।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানান, ‘হত্যাকা-ের সাথে জড়িত পারভীনের স্বামী সিরু খাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সিরু খাকে জিজ্ঞাসাবা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান জানান, ঘটনা শুনে তার নির্দেশে পুলিশ দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যাকান্ডের আলামতসহ একমাত্র আসামীকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই।









Leave a reply