চুয়াডাঙ্গায় মাথাভাঙ্গা সেতুতে আবারও ফাটল; ভারী যান চলাচল বন্ধ

|

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কের একমাত্র সংযোগ সেতু মাথাভাঙ্গা ব্রিজে আবারও ফাটল দেখা দিয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে সেতুটিতে ফাটল দেখা দেয়। পরে সে ফাটলের আকার বেড়ে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। রাতে স্থানীয় প্রশাসন এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কে সকল ধরনের ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ৬০ বছর বয়সের মাথাভাঙ্গা সেতুতে এর আগেও বড় একটি ফাটল দেখা দিয়েছিল। সেখানে পাটাতন দিয়ে কোনরকমে চলছিল সেতুটি। মঙ্গলবার বিকেলে সেই ফাটলের পাশেই আবারও আরও একটি ফাটল দেখা দেয়। নতুন ফাটলস্থল দেবে সেখানেও বড় গর্তের সৃষ্টির হয়। এদিকে বিঘ্ন ঘটে স্বাভাবিক যান চলাচলে।

খবর পেয়ে রাতে সেতুটি পরিদর্শনে আসেন জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস। পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, মাথাভাঙ্গা সেতুটি আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। মঙ্গলবার নতুন করে ফাটল দেখা দেওয়ায় সেই ঝুঁকির মাত্রা আরও বেড়ে গেল কয়েকগুণ। তাই সেতুটি মেরামত না হওয়া পর্যন্ত দুর্ঘটনা রোধে চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কানাই লাল সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ কলিমুল্লাহ, এনডিসি সিব্বির রহমান ও পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরি।

চুয়াডাঙ্গা সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী (এসডি) আদম আলী জানান, বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কায় ফাটলের পরই যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত করা হয়। রাতেই প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনার পর সব ধরণের যান চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যে সেতুটি মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। শেষ হতে সকাল পর্যন্ত সময় লাগবে।

এদিকে, মাথাভাঙ্গা সেতু দিয়ে যান চলাচল বন্ধের কারণে সেতুটির দুই পাশে চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর সড়কে চলাচলকারী অসংখ্য যানবহন আটকে পড়েছে। অনেকে বিকল্প পথ দিয়েও চলাচলের চেষ্টা করছেন।









Leave a reply