১৪ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরি

|

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অসাধারণ ব্যাটিং করেছেন মুশফিকুর রহিম। বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের শক্তিশালী বোলিংকে শাসিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে আরও একটি সেঞ্চুরি করেছেন মুশফিক। আর এটি হলো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মুশফিকের প্রথম সেঞ্চুরি। তাও আবার এটি দীর্ঘ ১৪ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

দীর্ঘ ১৪ বছর আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ নেন আশরাফুল। ব্যক্তিগত সমান ১০০ রানেই থেমে যান অ্যাশ। তবে ১০১ বলের ইনিংসে ১১ চার ছিল তার।

বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের নটিংহামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৮১ রানের পাহাড় ডিঙাতে নেমে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন মুশফিক। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২১০তম ম্যাচে সপ্তম সেঞ্চুরি করেন তিনি। বিশ্বকাপে এটা তার প্রথম সেঞ্চুরি। তবে টেস্টের ৬৬ ম্যাচে ৬টি সেঞ্চুরি ও ১৯টি ফিফটির সাহায্যে ৪ হাজার ৬ রান করেছেন মুশফিক।

বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের নটিংহামে প্রথমে ব্যাট করে ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি (১৬৬), উসমান খাজা ও অ্যারন ফিঞ্চের ঝড়ো ফিফটিতে ৩৮১ রানের পাহাড় গড়ে অস্ট্রেলিয়া।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে মুশফিকুর রহিমের সেঞ্চুরি ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ-তামিম ইকবালের ঝড়ো ফিফটিতে ৩৩৩ রান তুলতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১০২ রান করেন মুশফিক। ৬৯ রান করেন মাহমুদউল্লাহ। এছাড়া ৬২ রান করেন তামিম ইকবাল। ৪১ রান করেন সাকিব। মুশফিকের সেঞ্চুরিটি ৯৭ বলে ৯টি চার ও একটি ছক্কায় সাজানো।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ৩৮১/৫ (ওয়ার্নার ১৬৬, উসমান ৮৯, ফিঞ্চ ৫৩, ম্যাক্সওয়েল ৩২, স্টইনিস ১৭*, অ্যালেক্স ক্যারি ১১*, স্মিথ ১; সৌম্য ৩/৫৮, মোস্তাফিজ ১/৬৯)।

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ৩৩৩/১০ (মুশফিক ১০২*,মাহমুদউল্লাহ ৬৯, তামিম ৬২, সাকিব ৪১)।

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৪৮ রানে জয়ী।









Leave a reply