চীনা প্রধানমন্ত্রীর সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠক, চুক্তি-সমঝোতা স্মারক সই

|

বিদ্যুৎ, পানিসম্পদ ও আইসিটি খাতে ঋণ’সহ ৭টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই করলো, চীন-বাংলাদেশ। সকালে বেইজিং-এ, চীনা প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সাথে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠকে এসব চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থার উন্নয়নে, বাংলাদেশকে ঋণ দেবে চীন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে, চীনের এক্সিম ব্যাংকের সাথে, ২৭৪ কোটি ডলারের ঋণচুক্তি সই করা হয়। দেশে বিদ্যুৎ খাত সংশ্লিষ্ট ২২টি প্রকল্পে, এই অর্থ ব্যয় করা হবে।

এছাড়া, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি- DPDC, এলাকার বিদ্যুৎ ব্যবস্থা শক্তিশালী ও বৃদ্ধিকরণে, ক্রেতার অধিকার ঋণচুক্তি, পাওয়ার গ্রিড নেটওয়ার্ক শক্তিশালীকরণ চুক্তি ও বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে অর্থনৈতিক-কারিগরি সহযোগিতা চুক্তি সই হয়েছে। সেইসাথে বিনিয়োগ সহযোগিতা বিষয়ে সমঝোতা, ইয়ালুজংবো-ব্রহ্মপুত্র নদীতে, হাইড্রোলজিক্যাল তথ্য বিনিময় এবং সাংস্কৃতিক-পর্যটন বিনিময়, সমঝোতা স্মারক সই হয়। এদিকে, রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহায়তার আহ্বান জানানো হলে, আশ্রয় শিবিরে চাল সরবরাহের বিষয়ে আশ্বস্ত করেন চীনের প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে, সেখানে বীরদের স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তিনি। বিগ্রেট হল অব দ্য পিপলে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানেও যোগ দেয়ার কথা রয়েছে তার। পরে চীনা প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে অংশ নেবেন নৈশভোজে। বিকেলে CCPIT-তে চীনা ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সাথে বাণিজ্য বিষয়ক গোলটেবিল বৈঠকে অংশ নেবেন শেখ হাসিনা। আর কাল চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাথে বৈঠক করবেন তিনি।

জানা গেছে, আলোচনায় গুরুত্ব পাবে রোহিঙ্গা ইস্যু। এছাড়া এসময় ঢাকা-বেইজিং আটটি সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা রয়েছে। শনিবার দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী।









Leave a reply