মাদ্রাসাছাত্রী হিরার খুনিদের গ্রেপ্তারে এক্সপার্ট টিম কাজ করছে: খুলনা ডিআইজি

|

বাগেরহাট প্রতিনিধি:

মাদ্রাসা ছাত্রী হিরা’র খুনিদের আটকের জন্য পুলিশের একাধিক এক্সপার্ট টিম মাঠে কাজ করছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামের নিহত হিরার বাড়ী পরিদর্শনের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন খুলনা রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন

পুলিশ বিবস্ত্র অবস্থায় হিরা আক্তারের (১২) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো ফুলহাতা গ্রামের সিদ্দিক সিকদারের ছেলে ওসমান সিকদারকে (২৪) ও প্রতিবেশী হরমুজ আলীর স্ত্রী রানি বেগম (৫০)।

বৃহস্পতিবার সকালে নিহতের মা নাছিমা বেগম বাদি হয়ে ৫জনকে আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

থানার ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম জানান, মাদরাসা ছাত্রী হিরা আক্তার হত্যার মামলায় এজাহার নামীয় ওসমান সিকদার ও রানী বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রসংগত, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামে নিজ বসতঘরে বিবস্ত্র অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায় তার মেয়ে হিরা আক্তারের। খুনিরা হিরার নগ্ন শরীরে লিপিস্টক মেখে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রেখে যায়। হিরা আক্তার স্থানীয় ছাপড়াখালী গাজীরঘাট দাখিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। পিতা গাউছ শেখও একই মাদ্রাসার নৈশ প্রহরী।









Leave a reply