নওগাঁয় সেফটি ট্যাংকে নেমে যুবকের মৃত্যু

|

নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ

নওগাঁ সদর উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামে নবনির্মিত ল্যাট্রিনের সেফটি ট্যাংকে নেমে ভুট্টো হোসেন (২৩) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

একইসাথেভুট্টোর বাবা গোলাম মোস্তফা (৫৫) ও আশরাফুল (৩৬) নামে আরো দুই জন অসুস্থ্য হয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

শুক্রবার সকালে সেফটি ট্যাংকের ভেতর থেকে নির্মান সামগ্রী সরাতে গিয়ে তারা এই দূর্ঘটনার মুখে পরেন। নিহত ও আহত সকলেই পাহাড়পুর গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানান, পাহাড়পুর গ্রামের আজাহার আলীর বাড়িতে ইট-সিমেন্টের একটি নতুন ল্যাট্রিন নির্মান করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে আজাহারের ভাই আশরাফুল ল্যাট্রিনের ছাদের শার্টারিং খুলতে সেফটি ট্যাংকের ভেতরে ঢোকে। এর পর তার কোন সারা শব্দ না পেয়ে স্বজনরা শঙ্কিত হয়ে পড়েন। পরে প্রতিবেশী ভুট্টো ট্যাংকের ভেতর ঢোকে। তারও কোন সারা শব্দ না পেয়ে অবশেষে ভুট্টোর বাবা গোলাম মোস্তফা ট্যাংকের ভেতরে যান।

তাদের কারও সারা শব্দ না পেয়ে অবশেষে স্থানীয় গ্রামবাসীরা সেখানে জড়ো হয়ে ট্যাংকির ভিতর থেকে অজ্ঞান অবস্থায় তিন জনকে উদ্ধার করেন। উদ্ধারের পর তাদেরকে দ্রুত নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভুট্টো মারা যায়।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় গোলাম মোস্তফা ও আশরাফুলকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে চিকিৎসকরা জানান, বন্ধ থাকায় ট্যাংকের মধ্যে বিষাক্ত গ্যাস সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে সেখানে ঢোকা মাত্রই জ্ঞান হারিয়েছেন ভূক্তভোগীরা। এ ধরনের কাজে সকলকে সচেতন থাকার পরামর্শ দেন ডাক্তাররা।

নওগাঁ সদর মডেল থানার পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।









Leave a reply