ছেলের বিয়ের বাজার করতে গিয়ে লাশ হলেন বাবা

|

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:

ছেলের বিয়ে আর দেখা হলো না বৃদ্ধ আজিজুল হকের। বিয়ের বাজার করে কুষ্টিয়া থেকে চুয়াডাঙ্গায় ফেরার পথে সড়কেই লাশ হলেন তিনি। পরিবারের অন্য সদস্যদের সামনেই এ দূর্ঘটনার ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে চুয়াডাঙ্গা -আলমডাঙ্গা সড়কের মুন্সিগঞ্জ নিগার সিদ্দিকী কলেজের সামনে এ মর্মান্তিক দূর্ঘটনা ঘটে।

নিহত আজিজুল হকের বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলার পুরাতন বাজার পাড়া এলাকায়। তিনি ওই এলাকার মৃত মোজাফফর আলীর ছেলে। আজিজুল হক বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) দামুড়হুদা উপজেলা অফিসের অফিস সহকারী হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

আজিজুল হকের শ্যালক শরিফুল ইসলাম জানান, পরিবারের একমাত্র ছেলে আরেফিন হোসেনের বিয়ে ঠিক হয় কোটচাঁদপুরে। উভয় পরিবারের সিদ্ধান্তে আগামী ২ আগষ্ট বিয়ের দিন তারিখ নির্ধারণ হয়। ছেলের বিয়ের বাজার করতে স্বপরিবারে শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়ার পোড়াদহে বাজার শেষে দামুড়হুদাতে ফিরছিলাম আমরা। আমরা সকলে একটি সিএনজিতে থাকলেও আজিজুল হক নিজেই মটর সাইকেল চালিয়ে আসছিলেন।

নিহতের ছেলে আরেফিন হোসেন জানায়, দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে আমরা আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জ নিগার সিদ্দিকী কলেজের সামনে পৌঁছালে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি বেপরোয়া আলমসাধুর সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় আমার বাবার মটর সাইকেলের। এতে সড়কের ওপরই লুটিয়ে পড়ে আমার বাবা। দ্রুত বাবাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিলে চিকিৎসক ডা: কানিজ নাঈমা আবার বাবাকে মৃত ঘোষনা করেন।

আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান মুন্সি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন দূর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। কিন্তু তার আগেই ঘাতক চালক তার শ্যালোইঞ্জিন চালিত আলমসাধু নিয়ে পালিয়ে যায়।









Leave a reply