কেমন আছে বন্যা এলাকার শিশুরা

|

হোসাইন শাহীদ

শিশু সোহেল চোখে মুখে আতঙ্ক। বাড়ির যে উঠানে খেলা করার কথা সেখানে থৈ থৈ পানি। এমনটা দেখেনি সে কখনো। স্কুল বন্ধ সারাদিন বাড়িতেই। আতঙ্ক নিয়ে কাটে সারাদিন। আর রাত সেতো তার কাছে ভয়ঙ্কর একটা সময়। ঘরের ভিতরে পানি তার উপর সাপের ভয়।

সোহেলের মতো অবস্থা জামালপুরের বন্যা কবলিত ৬১ টি ইউনিয়নের হাজারো শিশুদের। এরই মধ্যে ১০ শিশু পানিতে ডুবে ও সাপে কাটার কারণে মৃত্যু হয়েছে।  স্যানিটেশন ব্যবস্থা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় দেখা দিচ্ছে রোগবালাই। নেই পর্যাপ্ত খাবার স্যালাইন ও ওষুধ।

ইসলামপুর উপজেলার চিনাটুলি গ্রামের মা আয়েশা বললেন, দুই সন্তান তার। ঠিকমতো খাবারই জোটছেনা তার শিশুদের।

একি গ্রামের রাবেয়া জানান, সব সময় এক সন্তানকে নিয়ে আতঙ্কে থাকতে হয় তাদের। কখন পানিতে ডুবে যায়।

শান্তনা দেবি বলেন, সন্তানদের নিয়ে বেশিভাগই গ্রাম ছেড়েছে। চুরির ভয়ে যেতে পারছিনা।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, ডাইরিয়া সহ অন্যান্য রোগ থেকে বাঁচতে শিশুদের প্রতি আরো সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পানিতে খেলা বা সাপে কাটতে পারে এমন জায়গায় খেলা করার নিষেধ করা হয়েছে।









Leave a reply