সৌদি বিমান ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা

|

সৌদি আরবের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আসির প্রদেশে একাধিক ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি জানিয়েছে, মঙ্গলবার ইয়েমেন থেকে আসির প্রদেশ লক্ষ্য করে বেশ কয়েকটি ড্রোন হামলার চেষ্টা করা হয়েছে; যদিও সেগুলো প্রতিহত করা হয়েছে।ৎ

এদিকে চীনের বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, একই অঞ্চলে বাদশাহ খালেদ বিমান ঘাঁটিতে বোমাবাহী ড্রোন দিয়ে হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। হুতি নিয়ন্ত্রিত আল মাসিরাহ টিভি এমন দাবি করলেও বিমান ঘাঁটিতে হামলার বিষয়ে আলাদা করে কিছু জানায়নি সৌদি কর্তৃপক্ষ।

হুতিদের মুখপাত্র ইয়াহইয়া সারিয়া বলেছেন, সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের হামলার জবাবে এই হামলা চালানো হয়েছে।

এদিকে আসিরে বিমান ঘাঁটিতে হামলার বিষয়ে কিছু উল্লেখ না করে ইয়েমেনে সৌদি সামরিক জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল মালিকি বলেছেন, মনুষ্যবিহীন এসব ড্রোন আকাশেই ধ্বংস করা হয়েছে। ড্রোনগুলো ইয়েমেন সীমান্তের কাছে সৌদির দক্ষিণপশ্চিমের আসিরের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার দিকে ছুটে আসছিল।

ইরানের সঙ্গে উপসাগরীয় অঞ্চলে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের চলমান উত্তেজনার মাঝেই গত কয়েক সপ্তাহে সৌদিতে হামলা বৃদ্ধি করেছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা।

এক বিবৃতিতে সৌদি সামরিক জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল মালিকি বলেছেন, ‘সৌদির বেসামরিক নাগরিক ও স্থাপনা লক্ষ্য করে ব্যর্থ হামলা চেষ্টায় এটি পরিষ্কার যে, আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন করে হুথি বিদ্রোহীরা।’

২০১৪ সালে রাজধানী সানা দখলের পর সৌদি সমর্থিত ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আবদুর রাব্বু মনসুর আল হাদিকে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করে হুথি। তারপর থেকেই দেশের বাইরে তিনি। হাদিকে ক্ষমতায় ফেরাতে ২০১৫ সালের জুনে ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে হামলা শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব সামরিক জোট।









Leave a reply