সেলফি তুলতে গিয়ে ইউএনও’র স্ত্রীর মোবাইল পানিতে : ডুবুরি দলের উদ্ধার

|

স্টাফ রিপোর্টার, জামালপুর:

ব্রিজে দাড়িয়ে সেলফি তুলছিলেন মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও তার স্ত্রী। হঠাৎ হাত ফঁসকে পানিতে পড়ে যায় মোবাইল ফোন সেটটি। লাখ টাকা দামের শখের মোবাইল বলে কথা। তাই মোবাইল উদ্ধারে ডাকা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। পরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসে উদ্ধার করে মোবাইল সেটটি।

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় চর লোটাবর সেতুতে এঘটনা ঘটে।

জামালপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তা মো. নুরুদ্দিন অলী জানান, মাদারগঞ্জের ইউএনও মো. আমিনুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলার সিঁধুলী ইউনিয়নের চর লোটাবর সেতু পার হওয়ার সময় সেতুতে গাড়ি থামান। সেতুর উপর তিনি তার স্ত্রীর সাথে সেলফি তোলার সময় হাত ফসকে মোবাইল ফোন সেটটি নিচে পড়ে পানিতে তলিয়ে যায়। আকস্মিক এ ঘটনায় ইউএনও দম্পতি হতভম্ব হয়ে পড়েন। গভীর পানিতে তলিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোন সেটটির আশা ছেড়ে দিয়ে বাসায় ফিরে যান তারা। পরে রাতেই তিনি জামালপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ফোন সেটটি উদ্ধারের অনুরোধ জানান। ইউএনও’র কথায় পরদিন শুক্রবার ভোরে মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বে দু’জন ডুবুরিসহ ছয় সদস্যের একটি দল নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। তারা সকালে কয়েকঘন্টা পানিতে ডুব দিয়ে মোবাইল ফোন সেটটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন। পরে মোবাইল ফোন সেটটি ইউএনও’র হাতে তুলে দেন তারা।

নুরুদ্দীন অলী বলেন, ঘটনাস্থলে পানির বেশ গভীরতা এবং স্রোত ছিল। ফোন সেটটি পানি নিরোধক হওয়ায় তা নষ্ট হয়নি। উনি (ইউএনও) এবং উনার স্ত্রী মোবাইল ফোন সেটটি ফিরে পেয়ে খুব খুশি হয়েছেন।

উপজেলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস-১০ মডেলের মোবাইলটি আমার স্ত্রীর খুব প্রিয়। আমরা তো ফোন সেটটির আশা ছেড়েই দিয়েছিলাম। এই সেটের দাম প্রায় এক লাখ টাকা। সেটটি উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদের সহায়তা নেয়া হয় এবং তারা সেটি উদ্ধার করতে পেরেছেন। তারা অনেক কষ্ট করেছেন। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।









Leave a reply