কুমিল্লাকে হারিয়ে সেরা দুইয়ে খুলনা


বিপিএল-এ পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকা কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ১৪ রানে হারিয়ে শীর্ষ দুইয়ে ঢুকে গেল খুলনা টাইটান্স। খুলনার দেয়া ১৭৪ রান তাড়া করতে নেমে কুমিল্লার ইনিংস থামে ৭ উইকেটে ১৬০ রানে।

আজকের দিনটাই যেন ছিল খুলনার পক্ষে। টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় খুলনার অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে সওয়ার হয়ে বড় সংগ্রহ করেছে খুলনা। শুরুতে নাজমুল হোসেন শান্ত ও শেষের দিকে আরিফুল হকের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে  ৬ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৭৪ রান জমা করে তারা।

৪ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ২১ বলের ৩৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন শান্ত। অপরদিকে, আরিফুলের সংগ্রহ ২১ বলে ৩৫ রান। তাতে ছিল ৪ চারটি বাউন্ডারি ও  ১ ছক্কার মার। এছাড়া, অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ করেন ২৩ বলে ২৩ রান। বিদেশিদের মধ্যে মাইকেল ক্লিঙ্গার করেন ২৮ বলে ২৯ রান করেন। শেষের  দিকে কার্লোস ব্রেথওয়েট করেন ১২ বলে ২২ রান করে দলে অবদান রাখেন। পিচে বোলারদের জন্য খুব বেশি কিছু ছিল না।  কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পক্ষে একমাত্র  আল আমিন হোসেনই প্রতিপক্ষ শিবিরে কিছুটা চাপ সৃষ্টি করতে পেরেছেন। তুলে নিয়েছেন ৩টি উইকেট ।

১৭৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ঘূর্ণিতে রানের খাতা না খুলেই ফিরে যান সলোমন মিরে। দ্বিতীয় জুটিতে ইমরুল কায়েস আর তামিম করেন ৬৩ রান। ১৯ বলে ২০ রান করে ইমরুল সাজঘরে ফিরে গেলে এই জুটি ভাঙ্গে । আর ৩৩ বলে ৩৬  রান করার পর কার্লোস ব্রেথওয়েটের শিকার হন তামিম। তখন থেকেই পথ হারায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ইনিংস। ১৬ বলে মাত্র ১১ রান তুলে নিজেদের চাপ আরো বাড়িয়ে তোলে কুমিল্লা।

এরপর ২৩ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ব্যাটিং করেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক। তার ইনিংসে ছিল ৩টি বিশাল ছক্কা। শেষ পর্যন্ত স্যামুয়েলসের ১৬ বলে ২৫ রানের ইনিংসে ৭ উইকেটে ১৬০ রানে গিয়ে থামে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। খুলনা টাইটান্সের পক্ষে ২ টি করে  উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহি আর বেনি হাওয়েল।

যমুনা অনলাইন: আরমি









Leave a reply