কাশ্মির ইস্যুতে ট্রাম্পকে ফোন দিলেন ইমরান খান

|

কাশ্মির সংকট নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দীর্ঘ ফোনালাপ হয়েছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি) বৈঠকে বসার আগে ট্রাম্পকে ফোন করেন ইমরান। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশির বরাতে ডন ও জিয়ো নিউজ এ খবর জানিয়েছে। দীর্ঘসময়ের এ ফোনালাপে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ইমরান আশ্বস্ত করতে সক্ষম হয়েছেন বলেও দাবি করেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

সোশ্যাল মিডিয়ায় দেয়া এক ভিডিও বক্তব্যে মাহমুদ কোরেশি বলেন, কাশ্মির ইস্যুতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ বৈঠকে বসার আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কাশ্মিরের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কথা বলেছেন। ভারতের সিদ্ধান্তকে ‘একতরফা’ বলে উল্লেখ করেন ইমরান। ট্রাম্পকে তিনি জানান, এর ফলে এ অঞ্চলে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে।

কাশ্মির ইস্যুর পাশাপাশি আফগানিস্তানের শান্তি প্রক্রিয়া নিয়েও ডোনাল্ড ট্রাম্প কথা বলেছেন বলে জানান পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাকিস্তানের অনুরোধ ও চীনের সমর্থনে কাশ্মিরের চলমান সংকট নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক ডেকেছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি)। শুক্রবার (১৬ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় কাশ্মীর সংকট নিয়ে এ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। যেখানে কাশ্মিরের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন বিশ্বনেতারা।

এর আগে, জুলাই মাসে ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, কাশ্মির বিরোধ সমাধানে মধ্যস্ততা করতে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাকে অনুরোধ করেছেন। তবে ভারত সরকার ট্রাম্পের এই দাবি পুরোপুরি অস্বীকার করেছে।

গত ৫ আগস্ট ভারত সরকার কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা (ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ) বাতিল করে। একই সঙ্গে জম্মু-কাশ্মিরকে ভেঙে দুটি অঞ্চল কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠন করা হয়েছে।

সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে স্থানীয় বাসিন্দা নন এমন নাগরিকদের সম্পত্তি কেনা ও বিয়ে করার সুযোগ করে দিয়েছে ভারত। কংগ্রেসসহ কিছু রাজনৈতিক দলের প্রতিবাদ সত্ত্বেও ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ এ সিদ্ধান্তে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছে। আর প্রতিবাদ জানিয়েছে কাশ্মিরের জনগণ।

এরপর থেকে কাশ্মিরের টেলিফোন লাইন, ইন্টারনেট ও টেলিভিশন নেটওয়ার্ক বন্ধ করে রেখেছে কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও সোমবার থেকে অধিকাংশ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ঘোষণা এসেছে।









Leave a reply