র‍্যাগিংয়ের নামে দেড়শো শিক্ষার্থীর মাথা কামিয়ে ঘোরানো হল ক্যাম্পাসে

|

ইদানিং র‍্যাগিং নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে। অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকেই র‍্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে দেখা যায়। কিন্তু তার পরে র‍্যাগিংয়ের মতো ঘটনা সম্পূর্ণ ভাবে বিলোপ হয়নি। এ রকম ভাবেই র‍্যাগিংয়ের এক জঘন্যতম ঘটনা ঘটল ভারতের উত্তপ্রদেশের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে, যেখানে প্রথম বর্ষের অন্তত দেড়শো শিক্ষার্থীকে মাথা কামিয়ে ঘোরানো হল। শিক্ষার্থীরা সবাই মেডিকেলের ছাত্র।

উত্তরপ্রদেশের সাফাইয়ে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সায়ান্সেসে এই ঘটনা ঘটেছে। র‍্যাগিংয়ের বিভিন্ন ভিডিও ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। একটি ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে সব শিক্ষার্থীরা মাথা কামিয়ে সাদা পাজামা-পাঞ্জাবি পরে এক লাইনে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে।

আরেকটা ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, সিনিয়রদের স্যালুট করছে তারা। তৃতীয় যে ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে সেখানে দেখা যাচ্ছে, এই শিক্ষার্থীদের সামনেই রয়েছে নিরাপত্তাকর্মীরা। কিন্তু তাঁরা শিক্ষার্থীদের জন্য কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছেন না।

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই মুখ পুড়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডঃ রাজ কুমার জানিয়েছেন, র‍্যাগিং আটকানোর জন্য সব রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে। তবুও কীভাবে এই ঘটনা ঘটেছে, তার কোনো সদুত্তর তিনি দিতে পারেননি। তবে জুনিয়রদের আশ্বস্ত করেছে তিনি বলেন, “এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জুনিয়রদের নিরাপত্তা আমাদের দায়িত্ব।”

উল্লেখ্য, গত এপ্রিলে হায়দরাবাদে র‍্যাগিংয়ের জেরে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিল এক ছাত্র। তার ঠিক আগের মাসে তামিলনাড়ুতে আত্মহত্যা করেছিল দু’জন। তারাও র‍্যাগিংয়েরই শিকার হয়েছিল বলেই জানিয়েছিল স্থানীয় প্রশাসন।









Leave a reply