মহাদেব সাহাকে স্বাধীনতা পুরস্কার দেয়ার দাবি আনিসুল হকের

|

কবি মহাদেব সাহাকে স্বাধীনতা পুরস্কার দেয়ার দাবি জানালেন প্রখ্যাত লেখক ও ঔপন্যাসিক আনিসুল হক।

বুধবার এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমন দাবি জানান তিনি।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন,

‘কবি মহাদেব সাহাকে স্বাধীনতা পুরস্কার দিন
আমরা জানি, এর আগে একজনকে অন্তত রাষ্ট্রীয় পুরস্কার প্রদানের দিন ফোন করে বলা হয়েছিল তিনি যেন না আসেন। জুয়েল আইচ ভাইয়ের স্টাটাসের বক্তব্য সমর্থন করি। দুটো পুরস্কার কেড়ে নেয়া এবং অন্তত একটি পুরস্কার প্রত্যাহার করে নেয়া যেতে পারে।
এর আগে অন্তত একবার পুরস্কার ঘোষিত হওয়ার পর বিজ্ঞপ্তি জারি করে দুজনকে স্বাধীনতা পুরস্কারে যুক্ত করা হয়েছিল।
এবার তেমন করে কবি মহাদেব সাহাকে সাহিত্যে স্বাধীনতা পুরস্কার দেবার অনুরোধ জানাচ্ছি। মহাদেব সাহার দুটো কবিতা আমার খুব প্রিয়।
তোমার বাড়ি
– মহাদেব সাহা—(তোমার পায়ের শব্দ)
এই বাড়িটি একলা বাড়ি কাঁপছে এখন চোখের জলে
ভালোবাসার এই বাড়িতে তুমিও নেই, তারাও নেই!
এই বাড়িটি সন্ধ্যা-সকাল তাকিয়ে আছে নগ্ন দুচোখ
একলা বাড়ি ধূসর বাড়ি তোমার স্মৃতি জড়িয়ে বুকে
অনাগত ভবিষ্যতের দিকেই কেবল তাকিয়ে থাকে,
কেউ জানে না এই বাড়িটি ঘুমায় কখন, কখন জাগে
স্তব্ধ লেকের কান্নাভেজা এই বাড়িটি রক্তমাখা!
এই বাড়িতে সময় এসে হঠাৎ কেমন থমকে আছে
এই বাড়িটি বাংলাদেশের প্রাণের ভিতর মর্মরিত,
এই বাড়িতে শহীদমিনার, এই বাড়িতে ফেব্রুয়ারি
এই বাড়িটি স্বাধীনতা, এই বাড়িটি বাংলাদেশ
এই বাড়িটি ধলেশ্বরী, এই বাড়িটি পদ্মাতীর
এই বাড়িটি শেখ মুজিবের, এই বাড়িটি বাঙালীর!
কফিন কাহিনী
– মহাদেব সাহা—(কী সুন্দর অন্ধ)
চারজন দেবদূত এসে ঘিরে আছে একটি কফিন
একজন বললো দেখো ভিতরে রঙিন
রক্তমাখা জামা ছিলো হয়ে গেছে ফুল
চোখ দুটি মেঘে মেঘে ব্যথিত বকুল!
চারজন দেবদূত এসে ঘিরে আছে এক শবদেহ
একজন বললো দেখো ভিতরে সন্দেহ
যেমন মানুষ ছিলো মানুষটি নাই
মাটির মানচিত্র হয়ে ফুটে আছে তাই!
চারজন দেবদূত এসে ঘিরে আছে একটি শরীর
একজন বললো দেখো ভিতরে কী স্থির
মৃত নয়, দেহ নয়, দেশ শুয়ে আছে
সমস্ত নদীর উৎস হৃদয়ের কাছে!
চারজন দেবদূত এসে ঘিরে আছে একটি কফিন
একজন বললো দেখো ভিতরে নবীন
হাতের আঙুলগুলি আরক্ত করবী
রক্তমাখা বুক জুড়ে স্বদেশের ছবি!’









Leave a reply