একা মরবো না, পানশালায় ঘুরে বেড়ালো করোনায় আক্রান্ত রোগী!

|

জাপানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বছর ৫০-এর রোগী লংকাকাণ্ড বাধিয়েছেন। তিনি একা মরতে চান না, এ জন্য এ ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে একের পর এক পানশালায় ঘুরে বেড়িয়েছেন। খবর দ্য সানের।

স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তার শরীরে করোনার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি ইচ্ছাকৃতভাবে কয়েকটি বারে ঘুরে বেড়িয়েছেন।

বুধবার জাপানের গামাগোরি জেলার একটি হাসপাতালে ওই ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। তার মা-বাবা থেকে তিনি এ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন এবং হাসপাতালে আসন খালি না হওয়া পর্যন্ত তাকে বাড়িতে থাকতে পরামর্শ দেয়া হয়।

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ওই যুবক উপকূলীয় ওই শহরটির দুটি পানশালায় ঘুরে বেড়ান। বাড়িতে থেকে বের হওয়ার সময় পরিবারের সদস্যদের বলে যান, ‘আমি এই ভাইরাস ছড়াতে যাচ্ছি।’

৫০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি প্রথমে একটি ট্যাক্সিতে করে একটি জাপানি বারে (ইজাকায়া) যান। পরে সেখান থেকে যান ফিলিপিনো একটি বারে।

লোকটি সেখানে কয়েক ধরনের পানীয় ও খাবার খেয়ে উপস্থিত অন্য কাস্টমারদের জানান, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

পরে সেখানে উপস্থিত কর্মীরা পুলিশ ডেকে আনেন। এর পর পুলিশ এসে তাকে একটি চিকিৎসাকেন্দ্রে নিয়ে ভর্তি করে।

এ ঘটনার পর পানশালা দুটি জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় শহরটির মেয়র তোশিয়াকি সুজুকি ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি বলেন, নির্দেশ দেয়া সত্ত্বেও তিনি বাড়িতে অবস্থান করেননি। এটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

জাপানে এক হাজারেরও বেশি নাগরিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তবে এদের বেশিরভাগই প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের যাত্রী ছিলেন। জাপানে নোঙর করা ওই প্রমোদতরীর ৬৯৬ যাত্রী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন। মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের।

করোনাভাইরাসে সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ১০ হাজার ৫৬ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৮২৮ জন। বিশ্বের ১০৭ দেশ ও অঞ্চলে এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।









Leave a reply