চট্টগ্রামে প্রতিমাসে ভাঙছে ৩৭২ সংসার

|

চট্টগ্রামে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা বেড়েছে আশংকাজনক হারে। সিটি করপোরেশনের হিসেবে, গড়ে প্রতি মাসে ভাঙছে ৩৭২টি সংসার। এজন্য পারস্পরিক আস্থাহীনতা এবং সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয়কে দায়ী, করছেন সমাজবিজ্ঞানীরা।

বন্দরনগরীতে প্রায় প্রতিদিনই বিবাহ বিচ্ছেদে বাধ্য হচ্ছেন কেউ না কেউ। গেল ২ বছরের পরিসংখ্যানেই এর প্রমাণ মেলে। ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের দুটি আদালতে বিচ্ছেদের আবেদন জমা পড়েছে প্রায় ৮,৯৪৯টি। অর্থাৎ গড়ে প্রতিমাসে প্রায় ৩৭২টি।

একাধিক ঘটনা বিশ্লেষন করে দেখা গেছে, উচ্চ ও নিন্মবিত্ত পরিবারগুলোর মধ্যেই বিচ্ছেদের প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। এর কারণ হিসেবে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস বলেন, উচ্চবিত্তদের মধ্যে নিজেদের মতো থাকার প্রবণতা রয়েছে, আর নিম্নবিত্তদের মাঝে নৈতিকতা ধারণাটি খুব দুর্বল, এমনকি এদের কাউন্সিলিং করারও সুযোগ নেই।

সমাজবিজ্ঞানীদের মতে, ধর্মীয় ও পারিবারিক অনুশাসন মেনে না চলা, মূল্যবোধের অবক্ষয় এবং পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ না থাকায় বাড়ছে বিচ্ছেদের ঘটনা। সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেনের মতে, দুজনের মাঝে মনোমালিন্য শুরু হলে অনেক দিন ধরে চলে, এই দ্বন্ধ নিরসনের লোকও নেই এরফলে এভাবে সংসারগুলো ভেঙে যাচ্ছে।

তুচ্ছ ঘটনা কিংবা জেদের বশে মামলা বা বিচ্ছেদের ঘটনা ঠেকাতে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ সেল গঠন করেছে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ। যেখানে ৯ মাসে ১২৭টি আবেদনের বিপরীতে ঠেকানো গেছে ৮৯ দম্পতির বিচ্ছেদ।

সমাজবিজ্ঞানীরা বলছেন, বিবাহ বিচ্ছেদ ঠেকাতে প্রয়োজন পারিবারিক সামাজিক শক্ত ভিত্তি। তা নিশ্চিত করলেই কমতে পারে এমন ঘটনা।

 









Leave a reply