দু’টি স্কুল পুড়িয়ে দিল দুর্বৃত্তরা

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলায় দূর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে পুড়ে গেছে তছলিম উদ্দিন বিদ্যা নিকেতন ও বকশিগঞ্জ আইডিয়াল নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়। স্কুল দুটির অফিস, শ্রেণি কক্ষ, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ফটোস্ট্যাট মেশিন, বই, মুল্যবান কাগজপত্র, আসবাবপত্র ও নগদ টাকাসহ অন্তত ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এছাড়া আগুনে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার সনদপত্র পুড়ে যাওয়ায় অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে দুই প্রতিষ্ঠানের কয়েকশ শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ।

বুধবার দিবাগত ভোর রাতে সাদুল্যাপুর উপজেলার বকশিগঞ্জ বাজার এলাকায় এ দুই ঘটনা ঘটে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আগুন দেওয়ার খবর পেয়ে ভোর রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করে। এছাড়া বুধবার দুপুরে সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বোরহান উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তবে দিন শেষেও কোনো ঘটনায়ই মামলা নেয়নি পুলিশ। আটক করা হয়নি কাউকে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ভোর রাতে হঠাৎ করেই তছলিম উদ্দিন বিদ্যা নিকেতন ক্যাম্পাসের ভিতরে আইডিয়াল নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে আগুন লাগে। মহুর্তেই তা ছড়িয়ে পড়ে বিদ্যালয়ের অফিস ও শ্রেণি কক্ষে। এক পর্যায়ে টিনশেড ভবনের দরজা-জানালা, চেয়ার, টেবিল, শ্রেণি কক্ষের বেঞ্চ, বই-খাতা পুড়ে যায়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে আসার আগেই স্থানীয় লোকজন চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

স্কুল পরিচালক সাবেক ইউপি সদস্য মো. রুহুল আমিন বলেন, সমাপনী পরীক্ষার (২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত) শত শত শিক্ষার্থীর মূল সনদপত্র পুড়ে গেছে।

রুহুল আমিন অভিযোগ করেন, ঈর্ষানিত হয়ে স্থানীয় একটি দূর্বৃত্ত চক্র আগুন দিয়েছে। অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে সাদুল্যাপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলেও জানান তিনি।

সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বোরহান উদ্দিন বলেন, ‘কিভাবে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের সনাক্তের চেষ্টা চলছে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।









Leave a reply