গৃহকর্মীকে হত্যা করে ফ্রিজে ভরে রাখা দম্পতির মৃত্যুদণ্ড

|

গৃহকর্মীকে হত্যার দায়ে এক দম্পতিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে কুয়েতের একটি আদালত। এই হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে কুয়েত ও ফিলিপিন্সের মধ্যে কূটনৈতিক টানাপোড়েন দেখা দিয়েছিল।

রোববার আন্তর্জাতিক গণ মাধ্যম বিবিসি-তে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, লেবাননের ওই  গৃহকর্তা ও তার সিরীয় স্ত্রীকে এ দণ্ড দেওয়া হয়েছে। তাদের অনুপস্থিতিতে আদালত এই আদেশ দেন।

গৃহকর্মী ফিলিপিন্সের জোয়ানা ডেমাফেলিসকে হত্যা করার পর তারা ফ্রিজের মধ্যে রেখে পালিয়ে গিয়েছিল। এর প্রায় এক মাস পর গত ফেব্রুয়ারিতে বিষয়টি জানাজানি হয়।

ক্ষুদ্ধ ফিলিপিন্স কাজের জন্য তার দেশের নাগরিকদের কুয়েতে পাঠানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল।

ফিলিপিন্স কর্তৃপক্ষ ‘কর্মক্ষেত্রে নিপীড়নের শিকার’ এমন এক হাজারের ওপর কর্মী ওই সময় দেশে ফিরিয়ে নিয়েছিল। যাদের মধ্যে বেশিরভাগই ছিলেন গৃহকর্মী।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুসারে, কুয়েতে আড়াই লাখের বেশি ফিলিপিনের নাগরিক কাজ করছে।

দেশ দু’টির মধ্যে সৃষ্ট কূটনৈতিক টানা পোড়েনের মুখে ইন্টারপোলের সহায়তায় গত ফেব্রুয়ারিতে তাদের সিরিয়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

ইন্টারপোল নাদের এসাম আসাফকে তার দেশ লেবাননের কাছে হস্তান্তর করে, এবং তাকে প্রত্যার্পনে কুয়েতের অনুরোধটি বিবেচনা করছে। আসাফের স্ত্রী মোনা সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে আটক রয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় দেশগুলোতে অভিবাসী কর্মীদের ‘কাফালা’ নামক মালিকের পৃষ্ঠপোষকতা ভিত্তিক বিতর্কিত পদ্ধতিতে ভিসা দেওয়া হয়ে থাকে।

এই পদ্ধতিতে অভিবাসীদের বেশিরভাগ সময় তার নিয়োগ কর্তার বাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে অবস্থান করতে হয়।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply