বার্সেলোনাকে উড়িয়ে দিয়ে সেমিফাইনালে রোমা

|

অবিশ্বাস্য কীর্তি গড়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে উঠেছে ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমা। ফিরতি লেগে দারুন ফর্মে থাকা বার্সেলোনাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ইউসেবিও দি ফ্র্যান্সেসকোর দল। ২ লেগ মিলিয়ে স্কোর লাইন সমান হলেও, অ্যাওয়ে গোলে পিছিয়ে থাকায় টানা তৃতীয়বার কোয়ার্টারে আটকে গেছে লিওনেল মেসিরা। এদিকে পিছিয়ে পড়েও ম্যানচেস্টার সিটিকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করেছে লিভারপুল।

এ যেন নক্ষত্রের পতন। টানা তৃতীয় বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় লিওনেল মেসির বার্সেলোনার। বিপরীতে নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথাম বারের মাত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি ফাইনালে নিশ্চিত করায় অশ্রু শিক্ত নয়ন স্বাগতিক রোমা সমর্থকদের। প্রথম লেগের আত্মঘাতি গোলের পাপ মোচনের পর বাঁধ ভাঙ্গা উল্লাসে জেকো-মানোলাস-রসিদের।

প্রথম লেগে ন্যু ক্যাম্পে ৪-১ ব্যবধানে হারের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি নিশ্চিতের মিশন অনেকটা অসাধ্য ছিল ইতালিয়ান ক্লাব রোমার জন্য। তবে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৬ মিনিটে সেই অসাধ্য সাধনের বার্তা দেন এডিন জেকো।

দ্বিতীয়ার্ধের ১২ মিনিটে পেনাল পেনাল্টি পায় রোমা। স্পট কিক থেকে ডি রসির কল্যানে ব্যবধান দ্বিগুণ করে রোমা। নিজেদের ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ মেসি-সুয়ারেজরা-জার্ডি আলাবারা। উল্টো অহেতুক ফাউল করায় হলুদ কার্ড দেখেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

শেষ দিকে আর দারুণ হেডে বার্সেলোনার কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন কোস্তাস মানোলাস। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোর লাইন সমান হলেও ন্যু ক্যাম্পে জেকোর অ্যাওয়ে গোলে শেষ চার নিশ্চত করে রোমার। আর টানা তিন মৌসুমে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গেল লিওনেল মেসির বার্সেলোনা।

আরেক ম্যাচে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে কঠিন সমীকরণে সামনে দাড়িয়ে লিভারপুল কে আতিথ্য দেয় ম্যানচেস্টার সিটি। প্রথম লেগে ৩-০ গোলের হারের পর ঘরের মাঠে দারুন শুরু পায় সিটিজেনরা। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই গ্র্যাবরিয়েল জেসাসের গোলে এগিয়ে যায় গার্দিওলা শীর্ষ্যরা।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৬ মিনিটে লিভারপুল কে সমতা ফেরান মোহম্মেদ সালাহ। আর ৭৭ মিনিটে ব্যাবধান ২-১ করেন ফিরমিনো। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ ব্যাবধানের জয়ে ২০০৭-০৮ মৌসুমের পর আবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি ফাইনালে উঠল লিভারপুল।

 









Leave a reply