‘প্লেবয়’ হিউ হেফনার আর নেই

|

‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হিউ হেফনার মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। আজ বৃহস্পতিবার হেফনারের পরিবার ও প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান থেকে তাঁর মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়।

প্লেবয় এন্টারপ্রাইজ জানায়, বুধবার, তার বাসভবন ‘প্লেবয় ম্যানসনে’ স্বাভাবিক মৃত্যুবরণ করেন হেফনার। বিশ্বের সবচেয়ে বিতর্কিত ম্যাগাজিনগুলোর অন্যতম ‘প্লেবয়’। ফিল্মস্টার মেরিলিন মনরো থেকে হাল আমলের আকর্ষণীয় মডেল, অভিনেত্রীদের নগ্ন ছবি ছাপিয়ে বিশ্বজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি করে প্লেবয় ম্যাগাজিন। পুরুষদের টার্গেট করে প্রকাশ করা ম্যাগাজিনটি ‘পিনআপ ম্যাগাজিনের’ খ্যাতি পেয়েছিল।

১৯৫৩ সালে নিজের বাড়ির রান্নাঘর থেকে ‘প্লেবয়’-এর প্রকাশনা শুরু করেছিলেন হেফনার। ক্রমান্বয়ে সেটিই কিনা বিশ্বের সর্বাধিক বিক্রি হওয়া ‘মেনস’ ম্যাগাজিন হয়। প্রাপ্তবয়স্কদের এই ম্যাগাজিনটির মাসে ৭০ লাখ কপি বিক্রির রেকর্ড আছে!

হেফনারের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ছিল অনেক বিতর্ক। ‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদকন্যাদের অনেকের সঙ্গেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি।সমকামীদের অধিকার নিয়েও কাজ করেছেন হেফনার।

শুধু আকর্ষণীয় নারীদের দেহসৌষ্ঠব নয়,অনেক পুরুষ মুখ ঠাঁই পেয়েছিল ‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে। এদের মধ্যে আছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও!  ১৯৯০ সালে হেফনারের ‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ হয়েছিলেন ট্রাম্প।

নগ্ন ছবির পাশাপাশি অ্যাডাল্ট ম্যাগাজিন ‘প্লেবয়’-এ ছাপা হয়েছে অনেক সিরিয়াস ইন্টারভিউও। ১৯৬৭ সালের জানুয়ারি সংখ্যায় ‘প্লেবয়’ কিউবার বিপ্লবী নেতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ফিদেল কাস্ত্রোর সাক্ষাৎকার প্রকাশ করে! এটি ছিল বেশ বড় ও বিশদ একটি সাক্ষাৎকার। আর এটি ছাপা হয়েছিল এমন এক সময়ে যখন কিনা যুক্তরাষ্ট্রের সাথে কিউবার সাপে-নেইলে সম্পর্ক।

‘পুঁজিবাদের কর্ণধার দেশের পুঁজিবাদী বিকৃতি’র ধারক ‘প্লেবয়’ ম্যাগাজিনে কেনো সাক্ষাৎকার দিলেন, এ নিয়ে  বিভিন্ন সময়ে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় ফিদেলকে। অবশ্য, ফিদেলের যুক্তি ছিল অকাট্য। তিনি বিষয়টিকে নিয়েছিলেন আমেরিকানদের কাছে নিজের বক্তব্য তুলে ধরার কৌশল হিসেবে।

হিউ হেফনারের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে পৃথিবী যে এক আলোচিত চরিত্রকে হারালো তাতে কোনো সংশয় নেই।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply