রানার্সআপেই সন্তুষ্ট থাকতে হলো বাংলার নারীদের

|

নাহ্। টুর্নামেন্টজুড়ে দারুণ ফুটবল খেলার পরও এবার সোনার হরিণ শিকার করা হলো না বাংলার মেয়েদের। অনূর্ধ্ব ১৫ সাফ ফাইনালে ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো।

যেমনটা খেলছিল, ভুটানের চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে পরিষ্কার ফেবারিট ছিল বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টে প্রথম তিন ম্যাচেই জয় পেয়েছে দুই দল। তবে বাংলাদেশ যেখানে তিন ম্যাচে ২২ গোল দিয়েছে, ভারত সেখানে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়েছে ১৫ বার। বিপরীতে, ভারত গোল খেয়েছিল একটি, বাংলাদেশের রক্ষণ একটিও না। বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতায় সর্বশেষ ৫ সাক্ষাতে ৪ বারই জয় হয়েছে বাংলাদেশের। এর পাশাপাশি ৭ মাসের অক্লান্ত অনুশীলন। তারাই তো ফেভারিট হবে।

পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে হারানোর পর নেপালকে ৩-০ আর ভুটানের বিপক্ষে ৫-০ গোলের জয় নিয়েই ফাইনালে এসেছে বাংলাদেশ। গত সাফে এই ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। এসব হিসেবের খাতা ওলটপালট করে দিল ৬৬ মিনিটে সুনীতা মুন্ডার একটি ভলি। কর্নার থেকে দুজন খেলোয়াড় নিজেদের মধ্যে দেওয়া নেওয়া করে একটি ক্রস করলেন। সেখান থেকে ভলি করলেন মুন্ডা। বাংলাদেশের গোলকিপার মাহমুদা সেটি ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় টুর্নামেন্টের একমাত্র গোল হজম করতে হলো তাদের। সেটিই কিনা ফাইনালে, আফসোস!

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply