নাটোরে থানা হাজতে হত্যা মামলার আসামীর রহস্যজনক মৃত্যু

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর:

নাটোরের বাগাতিপাড়া মডেল থানা হাজতে তিনটি হত্যা মামলার আসামী মহসিন আলী (৩০) নামের এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মহসিন উপজেলার বেগুনিয়া (চকগোয়াশ) গ্রামের মহির উদ্দিনের ছেলে।

পরে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে নাটোরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল আলমের উপস্থিতিতে মৃতদেহটি ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নামানো হয় এবং ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। পুলিশের দাবী হাজতে ব্যবহারের জন্য দেয়া কম্বল ছিঁড়ে রশি বানিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে মহসিন।

নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন জানান, মহসিনের বিরুদ্ধে তিনজন ভ্যান চালককে হত্যার অভিযোগ সহ আরো বেশ কয়েকটি অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে আটকের জন্য একাধিকবার তার বাড়িতে অভিযান চালানো হলে মহসিন প্রতিবারই পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। এরপর মহসিন গাজীপুরে অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে গাজীপুরের শ্রীপুর থানার মাওনা উত্তর পাড়ার আব্দুর রশীদের বাড়ি থেকে গেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তাকে বাগাতিপাড়া মডেল থানায় এনে হাজতে রাখা হয়। এরপর দুপুর ১২ টার দিকে হাজতের মধ্যে ভেনটিলেটরের গ্রীলের সাথে মহসিনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। পরে ঘটনাটি থানার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা সহ পুলিশ সুপারকে অবহিত করা হলে নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এরপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল আলমের উপস্থিতিতে মৃতদেহটি ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নামানো হয়।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাগাতিপাড়া থানা হাজতের গ্রীলের দুপাশে নেট দেয়া রয়েছে। এক পাশের একটি নেট ছেড়া। ওই নেটের ফাঁক দিয়েই গ্রীলের রডের সাথে তার ঝুলন্ত লাশ দেখা যায়। যে রডের সাথে কম্বল জড়ানো রয়েছে যে কোন ব্যক্তির পক্ষে ওই উচুঁতে উঠা প্রায় অসম্ভব।









Leave a reply