বরগুনায় সেই ধর্ষক মাদ্রাসা শিক্ষক বরখাস্ত, থানায় মামলা

|

বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনায় মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলামসহ তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পিতা। অন্যদিকে শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে মাদ্রাসা ব্যবস্থাপনা কমিটি।

একই সাথে দায়িত্ব অবহেলার কারণে মাদ্রাসা প্রধান মাওলানা মো: আলতাফ হোসেন, সাইফুলের বাবা এবং ওই প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মাওলানা মো: আলতাফ হোসেনকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়েছে।

সোমবার রাতে (২০ জানুয়ারি) বরগুনা থানায় মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পিতা মো: বাবুল গাজী। অভিযুক্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করায় এ মামলায় আসামি করা হয়েছে তার পিতা মাওলানা মো: ইব্রাহীম খলিল ও সাইফুলের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী রাশিদা বেগমকে।

অন্যদিকে ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী উন্নত চিকিৎসার জন্য বর্তমানে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ধর্ষক সাইফুলের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

প্রসঙ্গত রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের সাহেবের হাওলা রফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসার শরীর চর্চা শিক্ষক মো: সাইফুল ইসলাম গাইড বই দেয়ার কথা বলে একই মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে মাদ্রাসার পিছনে অবস্থিত সাইফুলের বাসায় ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রেখে পালিয়ে যায় সাইফুল। পরে শিক্ষার্থীর স্বজনরা স্থানীয়দের নিয়ে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।









Leave a reply