বারহাট্টায় শিশু শ্রমিকের মৃতদেহ উদ্ধার

|

নিজস্ব প্রতিবেদক, নেত্রকোণা:

নেত্রকোণার বারহাট্টায় এক শিশু শ্রমিকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সকাল নয়টার দিকে বারহাট্টা থানা পুলিশ বাউসী বাজার এলাকার পাশে একটি খাল থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

ওই শ্রমিকের নাম মো. হালিম মিয়া (১৪)। সে বারহাট্টার মৌয়াটি গ্র্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে। সে বাউসী বাজারে জমিরুলের চায়ের দোকানে কাজ করতো।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিশু হালিম মিয়া গত বৃহস্পতিবার দুপুরে চায়ের দোকান থেকে তার বাবার সঙ্গে নিজ বাড়িতে যায়। সেখান থেকে গত শুক্রবার রাতের খাবার শেষে সাড়ে আটটার দিকে বাড়ির সামনে বের হয়। এর পর ফিরতে দেরি হওয়ায় তার পরিারের লোকজন খোঁজ নেন। কিন্তু কোথায়ও শিশুটির সন্ধান মেলেনি।

আজ শনিবার সকালে স্থানীয় লোকজন বাউসী বাজারের কাছে একটি শুকনো খালে শিশুটির মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে এবং একই সঙ্গে হালিম মিয়ার পরিবারের লোকজন এসে পরিচয় সনাক্ত করেন। পরে ওই দিন বেলা সাড়ে ১২টার দিকে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বদরুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শত্রুতার জের ধরে শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর বিষয়টি জানা যাবে। রহস্য উদঘাটনে ঘটনার তদন্ত চলছে। মৃতদেহের স্থানটি যেহেতু নেত্রকোণা সদর উপজেলার সীমানায় পড়েছে সেহেতু নেত্রকোণা মডেল থানায় মামলা হবে।’









Leave a reply