বিডিআর বিদ্রোহ হত্যা মামলার হাইকোর্টের রায় ২৬ নভেম্বর

|

২০০৯ সালে পিলখানায় সংঘটিত বিডিআর (বর্তমান বিজিবি) বিদ্রোহের ঘটনায় করা হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১৫২ আসামির ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও রায়ের বিরুদ্ধে আসামিদের আপিলের ওপর হাইকোর্টের রায় ২৬ নভেম্বর।  এর আগে বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানির জন্য ২০১৫ সালে বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করা হয়।

২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর পিলখানায় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদরদপ্তরে বিদ্রোহের ঘটনায় সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে হত্যার দায়ে ১৫২ আসামির ফাঁসির রায় দেয় আদালত। পরে আসামিদের আপিল ও ডেথ রেফারেন্সের ওপর ৩৭০ দিবস শুনানি হয়। শুনানি এ বছরের ১৩ এপ্রিল শুনানি শেষ হয়। ৩৭০ দিবসের মধ্যে ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের আপিল নিয়ে ৩৫ হাজার পৃষ্ঠার পেপারবুক পাঠ করা হয়েছে ১২৪ কার্যদিবস। বাকি ২৩২ কার্যদিবস রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষ যুক্তি উপস্থাপন করে।

উল্লেখ্য,  ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন বিডিআরের সদর দপ্তরে পিলখানা ট্র্যাজেডিতে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জন প্রাণ হারান। এ ঘটনায় ২০০৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি লালবাগ থানায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা হয়।

টিবিজেড/









Leave a reply