মেয়েকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাবা গ্রেপ্তার

|

ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় নিজের মেয়েকে (১৫) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বাবা শহীদুল ফকিরকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় স্বামীকে একমাত্র আসামি করে শহীদুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছেন ওই কিশোরীর মা।

গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভাঙ্গা উপজেলার নূরুল্যাগঞ্জ ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মামলার এজাহার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শহীদুল ফকির মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। তার দুই ছেলে-মেয়ের মধ্যে এই মেয়ে বড়। স্বামীর কুমতলব টের পেয়ে মা এই মেয়েকে সম্প্রতি বিয়ে দিয়ে দেন। মেয়ের স্বামী বিদেশে চলে যাওয়ায় কয়েক দিনের জন্য বাবার বাড়িতে আসে। বাবার অভদ্র আচরণের কারণে নিজের বাড়িতে না ঘুমিয়ে বাড়ির পাশে চাচার বাড়িতে ঘুমাতো মেয়েটি।

গত সোমবার রাতে মায়ের সাথে ঘুমতে যায়। তখন বাবা তাকে ঘরের বারান্দায় নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। মেয়ের চিৎকারে মা জেগে ওঠে। তিনিও চিৎকার দিলে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে শহীদুলকে ধরে বেঁধে রেখে থানায় খবর দেয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নিখিল অধিকারী জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শহীদুলকে আটক করে। রাতেই শহীদুলের স্ত্রী তার স্বামীকে একমাত্র আসামি করে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করেন। মঙ্গলবার শহীদুলকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলার মূখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।









Leave a reply