চাঁদে অভিযানের সত্যতা নিয়ে আবারও বিতর্ক


১৬৬৯ সালে নীল আর্মস্ট্রং সর্বপ্রথম পা রেখেছিলেন চাঁদের বুকে। মানুষের মহাবিশ্ব জয় করার এক প্রথম অধ্যায় ছিলো এটি। কিন্তু এই অভিযানের সত্যতা নিয়ে আজও অনেক বিতর্ক রয়েছে। সম্প্রতি একটি ভিডিও সেটি আরও উস্কে দিলো।

আমেরিকার অ্যাপোলো ১৭ মিশনের একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে একজন মানুষ কোন ধরনের স্পেস স্যুট ছাড়াই চাঁদের বুকে হেটে বেড়াচ্ছে। এই ছবিই আমেরিকার চাঁদে যাওয়ার মিশন যে ভুয়া সেই দাবিটা আবারও উস্কে দিলো। Streetcap1 নামের একজন ইউটিবার একটি ভিডিও আপ করে এ দাবি করার পর বিষয়টি আবার আলোচনায় এসেছে। এর আগে হলিউড সিনেমার পরিচালক স্ট্যানলি কুবরিক দাবি করেছিলেন, তিনিই অ্যাপোলো-২ মিশনের চিত্রধারন করেছিলেন।

আমেরিকা সবসময় দাবি করে আসছিলো তারাই প্রথম চাঁদে মানুষ পাঠিয়েছে। স্নায়ুযুদ্ধের সেই উত্তেজনাপূর্ণ সময় আমেরিকা একে সোভিয়েত ইউনিয়নের বিপক্ষে বিজয় হিসেবে দাবি করে। কিন্তু পরবর্তিতে বিষয়টি ভুয়া প্রতিপন্ন করে একের পর এক তত্ত্ব হাজির হলে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়ে চন্দ্র অভিযানের সত্যতা।

এদিকে নাসার দাবি হিগুয়েন চারমানের নেতৃত্বে চাঁদের বুকে হেটে বেড়িয়েছিলো তিন ক্রু। কিন্তু সেই ছবি খুব কাছ থেকে বিশ্লেষন করে সমালোচকরা বলেছেন, এগুলো হলিউডে কোন সেটে ধারণ করা হয়েছে। তারা নাসার একটি ভিডিও জুম করে দেখিয়ে বলছেন, একজন মহাকাশচারীর মাস্কের কাচে যে প্রতিচ্ছবি রয়েছে, তাতে দেখা যায় একজন কোন স্পেস স্যুট ছাড়াই দাড়িয়ে রয়েছেন। এমনকি এই ব্যক্তির লম্বা চুল দেখা যাচ্ছে। যা সত্তর দশকের আমেরিকার চুলের ফ্যাশনের সাথে মিলে যায়। এছাড়াও ছবিতে এই ব্যক্তির ছায়া থেকেও এটা প্রমাণিত হয় যে তিনি বিশেষ কিছু পরিধান করেন নাই।

এদিকে ইউটিউবে এই ভিডিও বিশ্লেষণ ছড়িয়ে পড়ার পর তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। আবারও শুরু হয়েছে এর পক্ষে বিপক্ষে জোর সমালোচনা।









Leave a reply