গৃহকর্তাকে কুপিয়ে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

|

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুরঃ
মাদারীপুর জেলার শিবচরের উৎরাইল গ্রামে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় ডাকাতদল নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার ও লাইসেন্সকৃত ১ টি বন্দুক লুট করে। বাধা দিতে গেলে গৃহকর্তাকে কুপিয়ে জখম করে। গুরুতর আহতাবস্থায় গৃহকর্তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ জুন) দিবাগত রাত ২ টার দিকে শিবচরের উৎরাইল গ্রামের কাইয়ুম চৌধুরীর বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাত আনুমানিক ২ টার দিকে ঘরের কলাপসিবল গেটের তালা ভেঙে ৮/১০ জনের ডাকাতদল ঘরে প্রবেশের চেষ্টা করে। এসময় শব্দ পেয়ে পরিবারের লোকজনের ঘুম ভেঙে গেলে তারা বাইরে লোকজনের উপস্থিতি টের পান। দ্রুত ঘরের ভেতরের কাঠের দরজা ভেতর থেকে চেপে ধরেন। ডাকাতদল দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে গৃহকর্তা কাইয়ুম চৌধুরীকে কুপিয়ে জখম করে। এসময় আলমারি ভেঙে ২৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ৫০ হাজার টাকা ও একটি বন্দুক লুট করে নিয়ে যায়।

গৃহকর্তীর স্ত্রী মুক্তা বেগম বলেন,’ রাত ২ টার দিকে ৮/১০ জনের ডাকাত দল কলাপসিবল গেটের তালা কেটে, কাঠের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে। এদের মধ্যে ৪/৫ জন মুখোশ পড়া ছিল। প্রথমেই আমার স্বামীকে হাতে, পিঠে চারটি কোপ দেয়। পরে সব কিছু লুট করে নিয়ে যায়।’

সকালে খবর পেয়ে নিলখী পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

তবে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, উৎরাইল গ্রামটি নিলখী তদন্তকেন্দ্রের আওতাভুক্ত হলেও, নিলখী পুলিশের কোন তৎপরতা চোখে পড়ে না। রাতে কোন টহল নেই তাদের। তাছাড়া ফোন করলেও তাদের উপস্থিতি দেখা যায় না।’

অন্যদিকে পাশের গুয়াগাছিয়া গ্রামেও একই সময় সিরু মুন্সী নামের প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সেখানেও নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে ডাকাত দল।

সহকারী পুলিশ সুপার (শিবচর সার্কেল) আবির হোসেন বলেন,’ বিষয়টি দুঃখজনক। আমি খোঁজখবর নিচ্ছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’









Leave a reply