রাজধানীর খামারবাড়িতে বোমা সদৃশ বস্তু উদ্ধার

|

রাজধানীর খামারবাড়ি ও পল্টনে দুটি শক্তিশালী বোমা উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করেছে পুলিশ। বোমা দুটি দেখতে হুবহু এক এবং সেগুলো পড়ে ছিল পুলিশ বক্সের পাশে। মধ্যেরাতে নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সেগুলো নিস্ক্রিয় করে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। কারা এই বোমা রেখে গেছে- তা তদন্ত করছে পুলিশ।

বিস্ফোরণ ঘটিয়ে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ একটি পয়েন্টে বোমাতঙ্ক পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে পুলিশের বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট। বিকট শব্দে এসময় আশপাশের এলাকাও কেপে ওঠে। স্প্লিন্টার ছড়িয়ে পড়ে কয়েকশ গজ দুরে।

ঘটনাস্থল খামারবাড়ি গোলচত্বরে। রাত ১০টার দিকে পুলিশবক্সের একদম পাশে একটি কাগজের বাক্স দেখতে পান ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা। সেটা বিস্কুটের প্যাকেট মনে করে খুলে দেখতে যান কেউ একজন। পরে ভেতরে বোমার মতো কিছু টের পেয়ে খবর দেয়া হয় থানা পুলিশকে।

এরপর সেখানে, ডিএমপি’র কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের, বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিট সেটি নিষ্ক্রিয় করতে শুরু করে। ঘণ্টা দেড়েক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর তার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। খামারবাড়িতে বিস্ফোরণে ঘণ্টাখানেক আগে। রাজধানীর পল্টন মোড়ের পুলিশ বক্সের পাশে আরেকটি বোমা নিষ্ক্রিয় করে পুলিশ। পল্টনের বোমাটিও একই রকম দেখতে এবং একই রকম কাগজের বাক্সে ছিল। সেটিরও বিস্ফোরণ ঘটায় বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট।

কিন্তু, রাজধানীর জনবহুল দুই পয়েন্টে কাগজের বাক্সবন্দী শক্তিশালী বোমা কারা রেখে গেলো, তা নিয়ে অন্ধকারে পুলিশ।

ঘটনাস্থলগুলো থেকে বোমার সব আলামত নিয়ে পরীক্ষা করতে পাঠিয়েছে পুলিশ। গত কয়েকবছরে রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলায় যে বোমা বা ককটেল হামলা হয়েছে তার সাথে মিল আছে কিনা সেবিষয়েও তদন্ত করবে পুলিশ।









Leave a reply