ছাত্রলীগের পর যুবলীগ ধরেছি: প্রধানমন্ত্রী

|

আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোতে চলমান শুদ্ধি অভিযান আরও জোরদার করার ইঙ্গিত দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ছাত্রলীগের পর যুবলীগ ধরেছি। একে একে সব ধরবো।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে দলটির শীর্ষ নেতারা তাদের সাংগঠনিক অভিভাবক ও আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত করতে গণভবনে যান। সেখানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

আজ রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করেছেন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। এসময় সবার মাঝে আস্থা বিশ্বাস অর্জন করতে ছাত্রলীগকে সততা,আদর্শ নিয়ে সংযমের সাথে চলার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কোন নালিশ শুনতে চাই না, ছাত্রলীগের পর যুবলীগ ধরেছি। নিজেদের ইমেজ বাড়াতে হবে। নীতি আদর্শ নিয়ে চলতে হবে।

অনিয়মকারীদের কাউকে ছাড়া হবে না জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ছাত্রলীগের পর এখন যুবলীগকে ধরেছি। সামাজিক যেসব অসঙ্গতি এগুলো দূর করতে হবে। মারামারি খুনী, এই যে ক্যাসিনো নিয়ে মারামারি খুনোখুনি হবে এগুলো টলারেট করবো না।

তিনি বলেন, আমি কষ্ট করে সব কিছু করছি দেশের জন্য, দেশের উন্নয়ন করছি, এর ওপর কালিমা আসুক সেটা আমি কোন ভাবে হতে দেবো না। আমি কাউকেই ছাড়বো না। যদি কেউ বাধা দেয় কাউকে ছাড়া হবে না।

ক্যাসিনোতে যেসব বিদেশী কাজ করছে তাদের যারা এনেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্যাসিনোর সঙ্গে যারা জড়িত বিদেশী, তারা আসলো কিভাবে, তারা ভিসা পেল কিভাবে, তাদের বেতন দেওয়া হয় কিভাবে, ক্রেডিট কার্ডে না ক্যাশে। কে ভিসা দিয়ে আনলো সমস্ত কিছু তদন্ত করা হচ্ছে। সবই ধরা হবে।

ছাত্রলীগ নেতাদের সর্তক করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তোমাদের ওপর বিশ্বাস ও আস্থা নিয়ে দায়িত্ব দিয়েছি। বিশ্বাস ও আস্থার মর্যাদা যদি রাখতে না পারো তাহলে…।

ক্ষমতা প্রদর্শনের রাজনীতি ত্যাগ করার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, ক্ষমতা সো আপ করা, ছাত্র নেতাদের কাছ থেকে আশা করি না। ছাত্র নেতাদের বিনয়ী থাকতে হবে। যত উপরে উঠবে তত বিনয়ী হতে হবে।

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও গোলাম রাব্বানীর পরিবর্তে ১৪ সেপ্টেম্বর ভারপ্রাপ্ত হিসেবে ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ পদের দায়িত্ব পান আল নাহিয়ান খান ও লেখক ভট্টাচার্য।









Leave a reply