যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে জমি দখলের প্রতিবাদে ৩৫ পরিবারের মানববন্ধন

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর যুবলীগ সভাপতি ও কাউন্সিলর জাকির হোসেন জুকুর বিরুদ্ধে সরকারি জমিসহ ৬৫ একর জমি জবর দখল করার প্রতিবাদে এবং জমি ফেরত পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে মুক্তিযোদ্ধ পরিবারসহ ক্ষতিগ্রম্ত ৩৫টি পরিবার। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জমি ফেরত পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে।

বুধবার বেলা ১১টায় কলাপাড়া প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খেপুপাড়া সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আবুল কাশেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আ. মোতালেব হেসেন এর স্ত্রী মোসাঃ মাজেদা বেগম, মো. সোবাহান টেন্ডল, মো. নজরুল ইসলাম এবং মাওলানা মো. হাবিবুর রহমান।

বক্তাদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধকালীন শহীদ মোতালেব হোসেনের স্ত্রী মাজেদা বেগম বলেন, আমি শহীদ মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী হিসেবে সরকারি জমি বরাদ্দ পেয়েছি। সেই জমি জবর দখল করে জুকু নাচনাপাড়ায় একটি ইটভাটা নির্মাণ করেছে। জমির মূল্য চাইতে গেলে বিভিন্ন ভাবে আমাদের হুমকি প্রদান করে।

বর্তমানে জমি হারানো ৩৫টি পরিবার জুকুর সন্ত্রাসী বাহিনীর হুমকির মধ্যে আতঙ্কিত অবস্থায় আছেন। বক্তারা আরো বলেন, গত তিনবছর ধরে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে জুকু ও তার বাহিনীর সদস্যরা ভূক্তভোগী এসব পরিবারের সদস্যদের উপর নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করে আসছে। তার বাহিনীর ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাননা।

দখলে নেয়া ৬৫ একর জমিতে নির্মাণ করা তিনটি ইটভাটা হলো কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের টুঙ্গিবাড়িয়ায় ‘পায়রা ব্রিকস’। টিয়াখালী ইউনিয়নের পশ্চিমরজপাড়া গ্রামে ‘খান ব্রিকস’ এবং এই ইউনিয়নের নাচনাপাড়া গ্রামে ‘দেশ ব্রিকস’।

এদিকে অভিযুক্ত যুবলীগ সভাপতি এবং কলাপাড়া পৌরসভার তিন নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন জুকু তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ মিথ্যা বলে আখ্যায়িত করে বলেন, তাদের দাবিকৃত জমির বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারলে উপজেলা ভূমি কর্মকর্তাদের মাধ্যমে আমি তাদের জমি ছেড়ে দিবো।









Leave a reply