বেতন দ্বিগুণ হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটারদের; বেড়েছে নারীদেরও

|

ধর্মঘটের পর প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়ানোর যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিসিবি তা ইতিমধ্যেই কার্যকর হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী। এর আগে, ক্রিকেটারদের সাথে আলোচনায় ১১ দফা দাবি বিবেচনা করার কথা হলেও ১৩-তম দাবি অর্থাৎ নারী ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড। বিপিএলের আগে মিরপুরে ইনডোর সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ক্রিকেটারদের ১৩ দফা দাবির মধ্যে একটি ছিল ইনডোরসহ প্রশিক্ষণের সুযোগ সুবিধা বাড়ানো। বিসিবি সভাপতির শনিবার হঠাৎ সেই ইনডোর পরিদর্শনের পরও, বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরীর দাবি- ইনডোর সংস্কার প্রক্রিয়া নাকি ক্রিকেটারদের দাবির কারণে নয়। বরং বিসিবির’ই পূর্ব পরিকল্পিত।

বিদ্রোহে প্রথমে ১১ এবং পরে আরো দু’দফা বাড়িয়ে ১৩ দফা দাবি পেশ করেন ক্রিকেটাররা। তখন বিসিবি সভাপতি জানিয়ে দিয়েছিলেন বিবেচনা করা হবে কেবলমাত্র প্রথম দফায় উত্থাপিত ১১ দফা। কিন্তু অবস্থান থেকে সরে এসে নারী ক্রিকেটারদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর ১৩ নম্বর দাবিটি মেনে নিয়েছে বোর্ড। আগের তিন ক্যাটাগরি ১৫, ২০, ও ২৫ হাজার থেকে বেড়ে এখন সালমাদের বেতন হতে পারে পর্যায়ক্রমে ২০, ৩০ ও ৪০ হাজার টাকা।

আর ক্রিকেটারদের দাবি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে বেড়েছে সুযোগ-সুবিধা। প্রথম স্তরে থাকা সিনিয়র ক্রিকেটারদের ম্যাচ ফি ৩৫ হাজার থেকে বেড়ে হয়েছে ৭০ হাজার টাকা, আর দ্বিতীয় স্তরে ২৫ হাজারের বদলে ৫০ হাজার টাকা করা হয়েছে। প্রথম রাউন্ড থেকেই বর্ধিত হারে টাকা পাবেন খেলোয়াড়রা। সেই সাথে তৃতীয় রাউন্ড থেকে বৃদ্ধি করা হয়েছে সকল ধরনের অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা।

বিসিবি বলছে গুরুত্ব বিচার করে ক্রমান্বয়ে ক্রিকেটারদের সব দাবি বাস্তবায়ন করা হবে।









Leave a reply