‘লাল গেন্দা ফুল’র সম্মান না দিলেও রতন কাহারকে সম্মানী পাঠিয়েছেন বাদশা

|

বলিউড র‌্যাপার বাদশার সদ্য প্রকাশিত হওয়া ‘গেন্দা ফুল’ গান নিয়ে আলোচনা, সমালোচনা কম হয়নি। সবচেয়ে বড় বিতর্ক তৈরি হয়েছিল মূল গীতিকার রতন কাহারকে প্রাপ্য সম্মান ও সম্মানী না দেয়ায়। বিতর্কের মুখে শেষ পর্যন্ত রতন কাহারকে পাঁচ লাখ রুপি সম্মানী পাঠিয়েছেন। তবে, গানের কোথাও তার ক্রেডিট দেয়া হয়নি।

সোমবার দুপুরে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার বীরভূম শাখায় রতন কাহারের অ্যাকাউন্টে সম্মানীর এই অর্থ জমা হয়েছে। স্বভাবতই এই অর্থ সাহায্য পেয়ে খুশি বাংলার এই লোকশিল্পী। তিনি অর্থ সাহায্য পাওয়ার পর ফোন করে বাদশাহকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। নিজ বাড়ি সিউড়ি আসার আমন্ত্রণও জানিয়েছেন তাকে। লকডাউন উঠলেই বাংলায় গিয়ে রতন কাহারের সঙ্গে দেখা করবেন বলে কথাও দিয়েছেন বাদশাহ।

সনি মিউজিকের ব্যানারে বলিউড র‌্যাপার বাদশার সংগীতায়োজনে রতন কাহারের লেখা ‘বড় লোকের বিটি লো’ গানটি নতুন করে ‘গেন্দা ফুল’ শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছে। বিষয়টি জানতেনই না এই গানের গীতিকবি। গানটিতে গীতিকার হিসেবে নিজের নামটি না দেখায় ভীষণ কষ্ট পান গীতিকবি রতন কাহার। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের কাছে এ নিয়ে নিজের কষ্টে অনুভূতির কথাও বলেন তিনি।

তবে, বাদশা টাকা পাঠালেও সনি মিউজিক ইন্ডিয়ার ইউটিউবে ‘গেন্দা ফুল’ গানটির ক্রেডিট লাইনে গীতিকারের জায়গায় এখনো লেখা আছে ‘বেঙ্গলি ফোক’।

গানটি প্রকাশের পর সমালোচনার মুখে পড়ে বাদশা কথা দিয়েছিলেন লকডাউন শেষ হলেই বীরভূমের সিউড়ি যাবেন। বলেছিলেন অর্থসাহায্যও করবেন। কিন্তু লকডাউন শেষ হওয়ার আগেই সম্মানীর অর্থ জমা হয়ে গেল রতন কাহারের অ্যাকাউন্টে।

সনি মিউজিক ইন্ডিয়ার ইউটিউবে ২৬ মার্চ গেন্দা ফুল গানটি প্রকাশিত হয়। এরইমধ্যে ১৩ কোটি ভিউ পেরিয়ে গেছে গানটির। সম্মানী পাওয়ার পর প্রাপ্য সম্মানও জুটে কিনা রতন কাহারের ভাগ্যে সেটিই এখন দেখার বিষয়।









Leave a reply