দুর্গাপুরে কৃষক হত্যার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার ২

|


স্টাফ রির্পোটার, নেত্রকোণা:

একটি বিরোধপূর্ণ খেতে ধান কাটাকে কেন্দ্র করে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে আবুল হাসেম (৬৫) খুনের ঘটনায় মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে নিহতের স্ত্রী ফুলমতি বেগম বাদি হয়ে হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। এতে ছয়জনকে আসামি করা হয়।

নিহত আবুল হাসেম বনগাঁও গ্রামের বাসিন্দা। আর অভিযুক্ত ভাতিজা লাবু মিয়া (২০) পার্শ্ববর্তী কানাইল গ্রামের আবদুল লতিফের ছেলে।

এলাকার বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, একটি পৈতৃক জমি নিয়ে বিরিশিরি ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামের আবুল হাসেমের সঙ্গে তার ছোট ভাই কানাইল গ্রামের আবদুল লতিফ ও আবদুল রাজ্জাকের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। চলতি আমন মৌসুমে ওই খেতটিতে আবুল হাসেম আমন ধান চাষ করেছিলেন। কিন্তু সোমবার সকাল ১০টার দিকে আবদুল লতিফ, আবদুল রাজ্জাক ও আবদুল লতিফের ছেলে লাবু মিয়া খেতটিতে ধান কাটতে যান। খবর পেয়ে আবুল হাসেম খেতের কাছে এসে বাঁধা দেন। এ সময় তাদের মধ্যে কথাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ভাতিজা লাবু মিয়া তার চাচা আবুল হাসেমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় আঘাত করেন। এতে আবুল হাসেম গুরুতর জখম হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আবদুল রাজ্জাক ও ভাতিজা স্বপন মিয়াকে আটক করে। পরে দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

দুর্গাপুর সার্কেলের এএসপি মাহমুদা শারমিন নেলী বলেন, মামলায় নিহতের ভাই রাজ্জাক ও ভাতিজা স্বপন মিয়াকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।









Leave a reply