ফরিদপুরে অনীমা হত্যাকাণ্ডে দুই ছিনতাইকারী আটক

|

নার্স অনীমা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সেই দুই ছিনতাইকারী আটক

ফরিদপুুরে ছিনতাইকারীদের হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মারা যাওয়া সেবিকা অনীমা ভৌমিক এর উপর হামলাকারী দুই ছিনতাইকারীকে আটক করেছে কোতয়ালী থানা পুলিশ। এই ঘটনায় রবিবার বেলা ১২ টার দিকে প্রেস ব্রিফিং এর আয়োজন করে পুলিশ।

আটক অভিযুক্ত দুই জন হলো, সদর উপজেলার রঘুনন্দনপুর গ্রামের মো. ফারুক শেখের ছেলে শরীফুল ইসলাম (২৮) ও শহরের মোল্লাবাড়ি এলাকার মৃত আবদুস সামাদ মাতুব্বরের ছেলে হাবিবুর রহমান টিটো।

ব্রিফিং এ ফরিদপুরের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা জানান, গোপন সংবাদ ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সুনির্দিষ্ট অভিযোগে জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার শশুড় বাড়ি থেকে শরীফুল ইসলামকে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে হাবিবুর রহমানকে আটক করা হয়।

আটক দুই জনই প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছে বলে জানায় পুলিশ। আটককৃতদের কাছ থেকে ছিনতাই কাছে ব্যবহৃত মটরসাইকেল, ছিনতাই হওয়া মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

এদিকে মাদকমুক্ত, ছিনতাইমুক্ত, নিরাপদ ফরিদপুর চাই স্লোগান নিয়ে মানববন্ধন করেছে ‘আমরা করব জয়‘ নামের সমাজ কল্যাণ সংগঠন। রবিবার বেলা ১১টার সময় ফরিদপুরে শহরের প্রেসক্লাবের সামনে মুজিব সড়কে আধাঘন্টা ব্যাপী এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তরা ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স হত্যায় জড়িত পুলিশের হাতে আটক দুই ছিনতাইকারী’র দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানান।

উল্লেখ্য যে, গত ১৭ ফেব্রুয়ারী সকালে বাসা থেকে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে ছিনতাইকারীদের হামলার শিকার হন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স অনীমা ভৌমিক। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে এয়ার এম্বুলেন্স যোগে ঢাকায় নিয়ে নিউরোসাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ৫ দিন লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় ২২ ফেব্রুয়ারি মারা যান অনীমা। ২৩ ফেব্রুয়ারী অনীমা’র ভাই বিধান ভৌমিক বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় ছিনতাই ও হত্যার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন।









Leave a reply