আত্মহত্যাকারীদের জন্য হট লাইন

|

আত্মহত্যাকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়ে চলেছে। মৃত্যুর শীর্ষ দশটি কারণের মধ্যে একটি আত্মহত্যা। অগত্যা আত্মহত্যা করতে ইচ্ছুকদের জন্য হট লাইন চালু করতে যাচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসন।

পার্কল্যান্ড হাই স্কুলে গুলি ছোড়ার ঘটনার পর মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় আক্রান্তদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এই ধারাবাহিকতায় তিন ডিজিটের একটি হট লাইনের চালুর জন্য কংগ্রেসে একটি বিল উত্থাপনের প্রস্তুতি চলছে।

সিনেটর ওরিন হ্যাচ বলেন, “আমি বিশ্বাস করি জাতীয় আত্মহত্যা প্রতিরোধ লাইফ লাইন ব্যবস্থা আরও বেশি সহজ ও সহজলভ্য করার মাধ্যমে আমরা হাজার হাজার প্রাণ বাঁচাতে পারি।”

তিনি আরও বলেন, “বিদ্যমান ১-৮০০-২৭৩-৮২৫৫ নাম্বারটি সহজে মনে রাখা যায় না। বিশেষত যারা মানসিক সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন, তাদের জন্য মনে রাখা এক রকম অসম্ভব।”

বিলটি আগামী মে মাসে সিনেটে তোলা হতে পারে বলে উটাহ থেকে নির্বাচিত এই রিপাবলিকান সিনেটর জানান।

হতাশা, বা যে কোনো মানসিক সমস্যার মধ্য দিয়ে যাওয়া সময় কারও সঙ্গে নিজের ব্যক্তিগত বিষয় আলাপ করলে আত্মহত্যার হার কমিয়ে আনা সম্ভব বলে মনে করেন মনস্ততত্ত্ববিদরা।

মার্কিন দেশে লাইফলাইন নামে এমন একটি টেলিফোন সুবিধা থাকলেও তা দীর্গ সংখ্যার হওয়ায় প্রয়োজনের মুহূর্তে মনে না থাকার সম্ভাবনা বেশি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা, এবং এ ধরনের বিভিন্ন ঘটনা ঘটেছে বলেও দেশটির গণ মাধ্যম সূত্রে জানা যায়।’

জরুরি সেবা নাম্বার ৯১১-এর মতো তিন ডিজিটের একটি নাম্বার আত্মহত্যা প্রবণ ব্যক্তিদের জন্য চালু করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply