বাংলাদেশের টেস্ট স্ট্যাটাস নিয়েই প্রশ্ন লঙ্কানদের!

|

নিদাহাস কাপের ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা, এমনটাই ভাবনা ছিল লঙ্কানদের। ফাইনালের গাড়ির পাসেও সেটি ছাপিয়ে রেখেছিল তারা। সব আয়োজন ভেস্তে দিলো মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের এক বিশাল ছক্কা। আর, তার আগে বাংলাদেশের প্রাপ্য’নো বল’ না দেওয়াকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট উত্তেজনা তো আছেই। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে লঙ্কান গণমাধ্যমের চক্ষুশূলে পরিণত হয়েছে টাইগাররা। সেটা এতটাই যে বাংলাদেশে বাংলাদেশের টেস্ট স্ট্যাটাস নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে তারা!

শনিবার থেকেই সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, নুরুল হাসানদের সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছে বিভিন্ন লঙ্কান গণমাধ্যম। ক্রিকেটীয় চেতনা পরিপন্থী আচরণের দায়ে তাদের অভিযুক্ত করা হচ্ছে। ক্ষোভের তীব্রতা এতটাই যে বাংলাদেশের ক্রিকেটের সমালোচনা করতে গিয়ে আইসিসির সাবেক সভাপতি জগমোহন ডালমিয়াকেও দুষেছে তারা।

কলম্বো থেকে ইংরেজি ভাষায় প্রকাশিত দৈনিক দ্য আইল্যান্ডে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বাংলাদেশকে টেস্ট মর্যাদা দেওয়ার জন্য ডালমিয়াকে মরণোত্তর ১০০০ ডিমেরিট পয়েন্ট দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করা হয়েছে।

‘বাংলাদেশ গেট অ্যাওয়ে উইথ স্ল্যাপ অন দ্য রিস্ট’ শীর্ষক প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, ভারতীয় ক্রিকেটের সাবেক এই বড় কর্তা ক্রিকেটের জন্য অনেক কিছুই করেছেন। তবে দু-একটি ভুলও করেছেন তিনি। এর একটি হচ্ছে বাংলাদেশকে টেস্ট মর্যাদা দেওয়া। এজন্য ডালমিয়াকে মরণোত্তর ১০০০ ডিমেরিট পয়েন্ট দেওয়া উচিত।

আইসিসির সাবেক সভাপতি জগমোহন ডালমিয়া বাংলাদেশের ক্রিকেটের অগ্রগতিতে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন। ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশের ওয়ানডে ও ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পেছনে ভারতীয় এই সংগঠকের ভূমিকা কৃতজ্ঞতার সাথেই স্মরণ করে বাংলাদেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা। আর সে কারণেই কিনা লঙ্কান গণমাধ্যমের রোষানলের শিকার ডালমিয়া।

শুক্রবার ‘অঘোষিত সোমাফাইনালে’ বাংলাদেশের কাছে ২ উইকেটে হেরে যায় শ্রীলঙ্কা। শেষ ওভারে উদানা পরপর দু’বলে বাউন্সার দিলেও ‘নো কল’ করেননি আম্পায়ার। সেটি নিয়ে সৃষ্টি হয় উত্তেজনা। এক পর্যায়ে মাঠ থেকে খেলোয়াড়দের চলে আসার নির্দেশ দেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। শেষ পর্যন্ত মাঠে খেলা গড়ালে জয়ের জন্য বাংলাদেশের সমীকরণটা দাঁড়ায় ৪ বলে ১২ রান। ৩ বলেই সেটি নিয়ে লঙ্কানদের পিত্তি জ্বালিয়ে দেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। যার শেষটা হয় বিশাল এক ছক্কায়।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply