পরীক্ষার খাতায় ঘুষের টাকা!

|

পাশ করার জন্য বা বেশি নম্বর পাওয়ার জন্য কতকিছুই না করে পরীক্ষার্থীরা। তাই বলে খাতার মধ্যে টাকা রেখে দিতে হবে! অজ্ঞাত পরীক্ষকের উদ্দেশ্যে ঘুষের টাকা রাখার মতো অবাক করা ঘটনা ঘটিয়েছে বেশ কিছু পরীক্ষার্থী। খাতা পরীক্ষা করতে গিয়ে ১০০ ও ৫০ টাকার বেশ কিছু নোট পেয়েছেন শিক্ষকরা। টাকার পাশে আবার নম্বর বাড়িয়ে দেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় ঘটেছে এ ধরনের ঘটনা। এ বছরে বোর্ড পরীক্ষায় নকল ঠেকাতে কঠোর ভূমিকা রাখে প্রশাসন। ফেল করার ভয়ে পরীক্ষা দেয়নি প্রায় ১০ লাখ ছাত্র-ছাত্রী। অনেকের মধ্যে ফেলের ভয় তাড়া করে বেড়াচ্ছে। এজন্যই কিনা নম্বর বাড়াতে শিক্ষকদের ঘুষ দিতেও পিছপা হলো না তারা।

উত্তরপ্রদেশের বোর্ড সেক্রেটারি জানিয়েছেন, ছাত্রদের উত্তরপত্রের ভিত্তিতেই তাদের নম্বর দেওয়া হবে। এইসব উৎকোচ কখনই শিক্ষকেরা গ্রহণ করবেন না বলে জানান তিনি।

ঘটনা সামনেই আসতেই নজরদারি ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে উত্তরপত্র দেখার কেন্দ্রগুলিতেও। ২৪৫ কেন্দ্রে ১৭ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে উত্তরপত্র দেখা। প্রতিটি কেন্দ্রেই সিসিটিভি লাগানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবেলা।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply