ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞ: পশ্চিমা নীরবতার কঠোর সমালোচনায় করবিন

|

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় নিরস্ত্র মানুষের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর হত্যাযজ্ঞের নিন্দা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন। শনিবার এক বিবৃতিতে ওই ঘটনাকে তিনি অবৈধ ও অমানবিক হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

ব্রিটেনের দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকা জানিয়েছে, অন্তত ৩১ জন নিরীহ ফিলিস্তিনিকে সরাসরি গুলি করে হত্যার ঘটনায় পশ্চিমা দেশগুলোর নীরবতার কঠোর সমালোচনা করেছেন জেরেমি করবিন। তিনি বলেন,

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নীরবতা অবশ্যই ভাঙতে হবে। এছাড়া যুক্তরাজ্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিবের ডাকে সাড়া দিয়ে সাম্প্রতিক হত্যাযজ্ঞের নিরপেক্ষ তদন্তে সহায়তা করতে হবে। এছাড়া ইসরায়েলের কাছে অস্ত্র বিক্রির চুক্তিও নতুন করে মূল্যায়নের আহ্বান জানান লেবার নেতা।

লেবার পার্টির নেতা বলেন, গাজা উপত্যকার অধিকাংশ মানুষ রাষ্ট্রহীন শরণার্থীর জীবন যাপন করছে। দীর্ঘ এক দশকজুড়ে তারা ইসরায়েলি অবরোধের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে। তাদের মৌলিক মানবাধিকার ও রাজনৈতিক অধিকারকে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। তিন ভাগ মানুষের মধ্যে দুই ভাগেরও বেশি মানুষ মানবিক সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল।

এদিকে হুমকি উপেক্ষা করে ভূমি দিবসের কর্মসূচির খবর সংগ্রহ গিয়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর গুলিতে গাজা উপত্যকায় প্রাণ হারিয়েছে সাংবাদিকরাও। এদিন ইসরায়েলি গুলিতে নিহত হয়েছেন ৯ ফিলিস্তিনি। মারণাস্ত্রের বিপরীতে পাথর ছুঁড়ে প্রতিহত করতে গিয়ে আহত হয়েছে আরও সহস্রাধিক ফিলিস্তিনি। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় শুক্রবারের সংঘর্ষে সাত জনের মৃত্যুর খবর দিলেও সংঘর্ষের সময় আহত এক সাংবাদিকসহ অপর একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার নিহত হয়েছেন।

সব মিলিয়ে শনিবার পর্যন্ত দুই সপ্তাহে ভূমি দিবসের কর্মসূচিতে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩১ জনে। নিরস্ত্র বিক্ষোভকারীদের হত্যার ঘটনায় ইসরায়েলের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।









Leave a reply