‘মা দিবসে’ যে কাজগুলো করতে পারেন

|

আজ বিশ্ব মা দিবস। মাকে ভালোবাসার জন্য নির্দিষ্ট দিনের প্রয়োজন নেই। তবুও বিশেষ দিন হয়তো সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করতে পারে। আসুন জেনে নেই কিভাবে উদযাপন করবেন এই মা দিবস। লিখেছেন তালহা বিন জসিম

১. সবাই বলুন, মা তোমাকে ভালবাসি
পরিবারের অনেক সদস্য থাকলে, কারও কারও সাথে মায়ের একটু দূরত্ব সম্পর্ক থাকে। তাই অনেক কথাই বলা হয়ে উঠে না। আজই সব জড়তা দ্বিধা ঝেড়ে ফেলে বলে ফেলুন, মা তোমাকে ভালবাসি। অথবা সবাই একসাথে হয়ে একই উচ্চারণে মাকে বলুন, মা তোমাকে ভালোবাসি। সেটা হতে খাবার টেবিলে। বা কোন এক চায়ের আড্ডায়।

২. যে কথা অনেকদিন ধরে বলতে পারেন নি
অনেক সময় বয়স বাড়লে মায়ের সাথে সেই ছোট সময়ের মতো আর কথা বলা হয়ে উঠে না। অনেক কথাই বলতে চেয়েও বলতে পারছেন না। তাই পরিবারের সকল সদস্য নিয়ে আয়োজন করুন ‘না বলা কথার আড্ডা’। আজ সবাই অনেক দিন ধরে যে কথা মাকে বলতে পারছিলেন না, এক এক করে সবাই সে কথা বলবেন। আর মা শুনবেন।

৩. পারিবারিক মিলনমেলা
পরিবারের সদস্যরা চাকরি বা বসবাসের কারণে বিভিন্ন জায়গায় বসবাস করতে পারে। এদিনে পারিবারিক মিলনমেলার আয়োজন করতে পারেন। পরিবারের সকল সদস্যরা এইদিনে একসাথে হয়ে স্মৃতিচারণের আড্ডার আয়োজন করতে পারেন।

৪.শুনুন মায়ের স্মৃতিচারণ
পরিবারের সকল সদস্যকে অর্থ্যাৎ দুই বা তিন জেনারেশনের সবাইকে উপস্থিত করুন। নাতি নাতনি, সবাই উপস্থিত হয়ে স্মৃতিচারণের আড্ডার আয়োজন করুন। এরপর মা, সন্তানদের ছোট সময়ের গল্প করবেন। কি কি দুষ্টুমি করেছিলেন বা কিভাবে সন্তানরা বেড়ে উঠেছিলো, এসময় তিনি কি কি করেছিলেন। হয়তো ক্যারিয়ার গড়তে গিয়ে অনেক পরিশ্রম করেছেন। সেসব স্মৃতিচারণ করবেন মা আর সবাই শুনবেন। মোট কথা আজ মা বলবেন আর সবাই শুনবেন।

৫.সারাদিন মায়ের পছন্দের খাবার
আজ সারাদিন হতে পারে মায়ের পছন্দের খাবারের আয়োজন। সকাল থেকে ঘুমুনোর আগ পর্যন্ত মা যেসব খাবার পছন্দ করেন তার ব্যবস্থা করতে পারেন।

৬. কেক কেটে উদযাপন
বাসায় বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে কেক কেটে উদযাপন করতে পারেন। এজন্য সাজাতে পারেন বাসাকে। ফুলের সাথে থাকতে মায়ের পছন্দের গানের আয়োজন। নাতি নাতনিরা যেনো এই আনন্দ মেলাকে আরও রঙ দিতে পারে সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি দিতে পারেন।

৭.মায়ের প্রিয় বন্ধু-বান্ধবীদের নিয়ে আড্ডা
মাকে সারপ্রাইজ দেয়ার জন্য সন্ধ্যার পর তার প্রিয় বান্ধবীদের নিয়ে একটি আড্ডা আয়োজন করতে পারেন। চলতে পারে যতক্ষণ তারা চায়। আর পরিবারের সবাই তাদের এই আয়োজনকে আনন্দঘন করতে সহযোগিতা করতে পারেন।

৮.মাকে সব কাজ থেকে ছুটি
মা তার সন্তানের জন্য সবসময়ই সারাদিন কাজ করে থাকেন। একটি দিনের জন্য মাকে দিয়ে দেন ছুটি। আজ তিনি সারাদিন বিশ্রাম করবেন। কোন কাজ করবেন না। বাসার সবাই সব কাজ করবেন। রান্না-বান্না থেকে পারিবারিক যত কাজ আছে সবাই ভাগ করে নিয়ে নিন। মা আজ থাকবেন পুরোটা দিন ছুটিতে।

৯. উপহার দেয়া
দিতে পারেন বিশেষ উপহার। মা কি কি পছন্দ করে এতোদিনে পরিবারের সদস্যেরা জেনে গেছেন। তাই পছন্দ অনুযায়ী উপহার দিন। সেটা হতে পারে মায়ের কিশোর, তরুণ বয়সের সময়কার ছবি নিয়ে ছবি অ্যালবাম।

১০. দূরে থাকলে ফোন করুন
যদি কোনভাবেই মায়ের সাথে দেখা করার সুযোগ না থাকে তাহলে ফোন করুন। এখনতো ভিডিও ফোন দেয়া যায়। তাই পরিবারের সবাইকে নিয়ে গ্রুপ ভিডিও কল করতে পারেন।

১১. কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন
মাকে নিয়ে কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে মায়ের পছন্দ কোন জায়গা আছে কিনা জেনে নিতে পারেন। সেখানে পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরে আসুন। দেখে আসতে পারেন সিনেমা।

১২. গাছ রোপন করুন
পারিবারিক বাগানে মায়ের হাতে রোপন করুন তার পছন্দের কোন গাছের চারা। তারপর পরিবারের কোন সদস্যেকে যত্ন নেয়ার দায়িত্ব। দিনে দিনে চোখের সামনে গাছ বড় হবে মায়ের সাথে পরিবারের সদস্যেদের মধ্যে সম্পর্কের বন্ধন দৃঢ় হবে।









Leave a reply