ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে ভিজিএফের ১৭৬ বস্তা চাল উদ্ধার

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নে ঈদ উপলক্ষে হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণের জন্য ভিজিএফের ১৭৬ বস্তা চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (১৩ জুন) ভোর রাতে সাদুল্যাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্জয় কুমার মহন্তের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ধাপেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের পিছনে আজাদুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চালগুলো উদ্ধার করেন।

সাদুল্যাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, ‘আজাদুল ইসলামের বাড়ি থেকে ঈদ উপলক্ষে ভিজিএফের ৫০ কেজি ওজনের ১৭৬ বস্তা চাল জব্দ করা হয়েছে। অভিযানের সময় অভিযুক্ত ব্যবসায়ী আজাদুল ইসলাম পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে’।

সাদুল্যাপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান মনির জানান, ঈদ উপলক্ষে ধাপেরহাট ইউনিয়নের ৩৭৮৫ সুবিধাভোগীর জন্য মাথাপিছু ১০ কেজি করে মোট ৩৭.৮৫০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। মঙ্গলবার ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে সুবিধাভোগীদের মাঝে চাল বিতরণের দিন ধার্য ছিলো। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি জানান, জন প্রতিনিধি ও এক শ্রেণির দালাল সুষ্ঠুভাবে চাল বিতরণ না করে তিন-চতুর্থাংশ চাল কালোবাজারে বিক্রি করেছে বলে অভিযোগ উঠে। এমন অভিযোগে উপজেলা প্রশাসন অভিযান চালিয়ে চাল উদ্ধার করেছে। এছাড়া সাদুল্যাপুর উপজেলার অন্য ইউনিয়নগুলোতে চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।

ধাপেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘সুষ্ঠুভাবেই পরিষদে সুবিধাভোগীদের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়েছে। চাল উত্তোলনের পর ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দিয়েছে সুবিধাভোগীরা। সেই চাল প্রশাসন উদ্ধার করেছে। এখানে চাল বিক্রি বা উদ্ধারের সাথে পরিষদের কেউ জড়িত নয়। মূলত এটি আমার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ও প্রতিপক্ষের পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র’।









Leave a reply