দাওয়াত দিয়ে বাড়িতে নিয়ে দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

|

ষ্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার পূর্বকোদালিয়া দক্ষিণপাড়া মহল্লায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কাউছার হোসেন (২৩) নামের এক পশু ডাক্তারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। এঘটনায়  আহত বড় ভাই মিল্টন (৩২) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারাগেছে। এঘটনার সাথে জড়িত খাষপুখুরিয়া ইউপির সংরক্ষিত সদস্য শিরিন সুলতানাকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে ইউপি সদস্যের বাড়িতে এঘটনা ঘটে। কাউছার ওই গ্রামের এন্তাজ আলীর ছেলে।

নিহতের স্বজনেরা জানান, কাউছারের বাবা এন্তাজ আলীর সঙ্গে মহিলা মেম্বার শিরিন সুলতানার স্বামী রফিকুল ইসলাম বকুলের সাথে জমিতে ড্রেন নির্মাণসহ জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিলো দীর্ঘ দিনের। শুক্রবার বিকেলের দিকে বাড়িতে দাওয়াতের কথা বলে কাউছারকে ডেকে নিয়ে ঢেকির চুরুন ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে খুনিরা। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মিল্টন (৩২) ঢাকা মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ বেলা ৩টার দিকে মারা যান বলে নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসক। এছাড়া আরও ৩ জন আহত হয়েছে।

চৌহালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, তিনি খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় নিহতের মা বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। রাতেই আসামি সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য শিরিন সুলতানাকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে। আর নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্যে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।









Leave a reply